fbpx
কলকাতাটাইমলাইনরাজনীতি

মমতাকে কে দিল প্রেমপত্র? চিঠি নিয়ে জল্পনা!

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সিএএ প্রত্যাহারের আন্দোলনে একমঞ্চে আহ্বান জানিয়েছেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। সেই নিয়ে কিছুটা অস্বস্তিতে পড়ে গিয়েছে আলিমুদ্দিন। তারই সাফাই দিলেন সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম। বললেন,চিঠি দিয়ে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ওনাকে, কোনও প্রেমপত্র দেননি।

আর এই চিঠির জেরে কেরল বনাম বেঙ্গলের এক ঠাণ্ডা লড়াই শুরু হয়ে গেল। কারণ বাংলায় তৃণমূলের ঘোর বিরোধী সিপিএম। আর কেরলের সেই সিপিএম দলই তৃণমূলকে পাশে পাওয়ার আমন্ত্রণ জানিয়েছে।যা বেশ খানিকটা বিপাকে ফেলে দিয়েছে বাংলায় সিপিএম-কে। সেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে সাফাই দিলেন বাম নেতা সেলিম। বললেন, কেরলের মুখ্যমন্ত্রী যে সমস্ত রাজ্য সরকার, সিএএ বিরোধী তাদেরকে চিঠি দিয়েছেন, সেই অর্থে বাংলার সরকারকেও চিঠি দেওয়া হয়েছে। প্রেমালাপের জন্য কোনও প্রেমপত্র দেওয়া হয়নি। সেলিমের এই মন্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

কিন্তু যাই বলো, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সিপিএম-পাশে থাকার আহ্বান কোনওভাবেই হজম হয়নি আলিমুদ্দিনের। কিন্তু কিছুতো সাফাই গাইতেই হবে। তাই অগত্যা এমনটাই ইঙ্গিত দিলেন সেলিম, যে এখানে কোনও রাজনৈতিক সমীকরণের জায়গা নেই। মানুষের স্বার্থে, দেশের সংবিধান বাঁচাতে সিএএ-র প্রতিবাদে লড়াই করতে একজোট হওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।তবে এ বিষয়ে এখনও পর্যন্ত মুখ খোলেন তৃণমূল। বাংলায় সাথ না দিলেও কেরলের সিপিএম-এর ডাকে সাড়া দেবেন কিনা তৃণমূল সুপ্রিমো , সেটাই দেখার।

প্রসঙ্গত, কেরলের বিধানসভায় বিজেপির এক বিধায়ক ছাড়া সর্বসম্মতিক্রমে সিএএ বাতিলের প্রস্তাব পাস হয়েছে। ওই আইন সংবিধানের মূলনীতির বিরোধী। সিপিএম-এর রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র বলেছেন, বাংলাতেও বিধানসভায় এমন প্রস্তাব পাস করুক তৃণমূল।

 

 

 

 

 

Back to top button
Close
Close