দ্বিতীয় বিয়ে করছেন সৌরভ! ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে ফাঁস হল সিক্রেট, কী বলছেন ডোনা?

বাংলা হান্ট ডেস্ক : তিনি একাধারে যেমন ক্রিকেটার, অন্যদিকে তিনিই আবার শিল্পপতি, সঞ্চালক। এরকম একাধিক পরিচয় রয়েছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের (Sourav Ganguly)। লর্ডসের মাঠে জামা ওড়ানো হোক বা ভক্তের হৃদয় কাঁপানো, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় মানেই বাঙালির আবেগ। বাইশ গজে তাকে আর না দেখা গেলেও দাদাগিরির (Dadagiri) মঞ্চেই ছক্কা হাঁকাচ্ছেন আজকাল।

জি বাংলার এই চর্চিত শোয়ের নামডাক বহুদিন ধরেই। সদ্যই শুরু হয়েছে এই শো-র দশম সিজন। আর তারপর থেকেই সমস্ত সংবাদের শিরোনামে রয়েছে দাদার কাণ্ডকারখানা। দাদার কর্মজীবন থেকে শুরু করে ব্যক্তিগত জীবনের খুঁটিনাটি রহস্য সব গল্পই উঠে আসে এই মঞ্চে। বিশেষ করে দাদার মিসেস, ডোনা গাঙ্গুলীর গল্প তো হামেশাই শোনা যায়।

   

ডোনা সশরীরে উপস্থিত না থাকলেও প্রায় প্রত্যেক পর্বেই ‘ম্যাডাম’কে নিয়ে কথা বলতে দেখা যায় ‘দাদা’কে। হামেশাই স্ত্রী-র সম্পর্কে নানাবিধ সিক্রেট ফাঁস করেন দাদা। ভক্তরাও দারুণ উপভোগ করে এইসব খুনসুঁটি। এই যেমন এইদিন, কচিকাঁচাদের নিয়ে একটা পর্বের আয়োজন করা হয়েছিল। আর সেই পর্বেই মালদার এই প্রতিযোগীকে ‘দাদা’ জিজ্ঞেস করেন, তুই নাকি হাত দেখতে পারিস? এই বলে তার সামনে নিজের হাত বাড়িয়ে দেন।

আরও পড়ুন : ‘গদর ২’র সাফল্যের পর সানির মাস্টারস্ট্রোক! এবার ‘রামায়ণে’ এই চরিত্রে দেখা যাবে তারা সিংকে

এরপর খুদে সৌরভের হাত দেখে বলে, ‘তোমার অনেক নাম-যশ হবে। অনেক টাকা-পয়সা হবে’। এরপরেই প্রিন্স অফ ক্যালকাটা জিজ্ঞেস করেন, ‘আরেকটা বিয়ে হবে?’ খানিক ভেবে খুদে প্রতিযোগী উত্তর দেয়, ‘হ্যাঁ, হতেও পারে’। আর সেই জবাব শুনে হাসিতে ফেটে পড়েন মহারাজা। জি বাংলার তরফ থেকে এই ভিডিও প্রকাশ করতেই নিমেষের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় সেটা।

আরও পড়ুন : অস্কার প্রাপ্ত হলেও ব্রাত্য বাংলায়! কোথায় হারিয়ে গেলেন হলিউড পরিচালকদের পছন্দের ভিক্টর ব্যানার্জী?

dadadona

ভিডিওর কমেন্ট বক্স ভরে ওঠে মজার মজার সব মন্তব্যে। এক নেটিজন লিখেছেন, ‘ডোনা বৌদি জানে ব্যাপারটা?’ অপরজন দাদাকে সতর্ক করে লিখেছেন, ‘আজ তোমায় বাড়িও ফিরতে হবে’। এর আগে একবার ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে অভিনেত্রী সম্পূর্ণা লাহিড়ীর এক মজাদার প্রশ্ন করেছিলেন দাদাকে। তিনি জিজ্ঞেস করেন, ‘তোমার আর ডোনাদির মধ্যে কি নিয়ে ঝামেলা হয়’। জবাবে সৌরভ বলেন, ‘আমি সারাক্ষণ মার খেতে থাকি’। এরপরেই তিনি আরও বলেন, ‘মহিলারা কারণ ছাড়া ঝামেলা করে। আমায় কিছু বললে আমি কোনও জবাব দিই না। সেই সময় অন্য কথা ভাবি। আর তাতেই ম্যাডাম রেগে যান’।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর