fbpx
টাইমলাইনভারত

উপদ্রবীদের সোজা জেলে ঢোকানো উচিত, ২ বছরের জন্য JNU কে বন্ধ রেখে দেওয়া উচিত সুব্রহ্মণ্যম স্বামী

জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয় (JNU) হোস্টেলের ফি বাড়ার কারণে যে বিতর্ক শুরু হয়েছিল তা থামার নাম নিচ্ছে না। এদিকে, মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক (HRD) তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে, যা জেএনইউর স্বাভাবিক কার্যক্রম পুনরুদ্ধার করার জন্য পরামর্শ দেবে। দিল্লীতে, বিক্ষোভের কারণে মেট্রো স্টেশনগুলিও বন্ধ হয়ে গেছে।

দিল্লি পুলিশের আদেশের পরে, উদ্যান ভবন, জনকল্যাণ মার্গ, কেন্দ্রীয় সচিবালয় এবং প্যাটেল চৌক মেট্রো স্টেশনে পরিষেবা স্থগিত করা হয়েছে।JNU তে গত বেশ কয়েকদিন ধরে ব্যবস্থাপনা এবং শিক্ষার্থীদের মধ্যে চলমান বিরোধের সমাধানের জন্য সরকার বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) প্রাক্তন চেয়ারম্যান অধ্যাপক ভিএস চৌহানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কমিটি গঠন করেছে।

এই কমিটি সব দলের সাথে যোগাযোগ করবে এবং জেএনইউ বিরোধের সমাধানের পরামর্শ দেবে। রাজ্যসভার সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী উত্তেজিত শিক্ষার্থীদের সমালোচনা করে বলেছিলেন যে তারা সবাই উপদ্রবী এবং তাদের কারাগারে প্রেরণ করা দরকার। স্বামী বলেছিলেন যে জেএনইউ 2 বছরের জন্য বন্ধ রাখতে হবে এবং শিক্ষার্থীদের অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠাতে হবে।

সরকার জারি করা আদেশে বলা হয়েছে, জেএনইউতে কীভাবে কার্যকারিতা স্বাভাবিক করা যায় তা তদন্ত করে কমিটি প্রতিবেদন জমা দেবে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, সর্বভারতীয় কারিগরি শিক্ষার কাউন্সিলের (এসআইসিটিইই) চেয়ারম্যান অধ্যাপক অনিল সাহস্রাবুধে এবং ইউজিসির সচিব অধ্যাপক রজনীশ জৈন।

তবে আপাতত JNU এর উপদ্রব নিয়ে সুব্রহ্মণ্যম স্বামী মুখ খুলেছেন। উনি বলেছেন যে, ২ বছরের জন্য JNU বন্ধ রেখে দেওয়া উচিত। অন্যদিকে উপদ্রবী ছাত্রদের জেলে ঢুকিয়ে দেওয়া উচিত। একই সাথে অন্য ছাত্রদের অন্য ইউনিভার্সিটিতে রাখা উচিত।

Leave a Reply

Close
Close