টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

“শেষ সচিনকে নিয়ে এতটা উত্তেজিত ছিলাম, এবার….” তরুণ ভারতীয়কে নিয়ে বড় বয়ান সুনীল গাভাস্কারের

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: এই মুহূর্তে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টি টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে ভারতীয় দল। বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, যশপ্রীত বুমরাদের মতো অভিজ্ঞ তারা কারা এই সিরিজে নেই। চোটের জন্য ছিটকে গেছেন অভিজ্ঞ ব্যাটার লোকেশ রাহুল। দলে রয়েছে একাধিক তরুণ মুখ যারা ভারতীয় দলে অভিষেক করে সকল ক্রিকেটপ্রেমীদেরকে প্রভাবিত করার সুযোগ খুঁজছেন।

সিরিজের প্রথম ম্যাচে হারের পরও গতকাল ভারতীয় দল দ্বিতীয় ম্যাচে কোনওরকম পরিবর্তন করেনি দলে। কিন্তু টানা দুই ম্যাচে হারের মুখ দেখার পর এবার হয়তো তৃতীয় ম্যাচে একাদশে কিছু পরিবর্তন আনতে পারেন ভারতীয় কোচ রাহুল দ্রাবিড়। উমরান মালিক এবং অর্শদীপ সিং এর মত তরুণ প্রতিভাবান বোলারদের স্কোয়াডে রেখে বসিয়ে রাখার কোন মানে হয় না। হয়তো তৃতীয় ম্যাচেই এই দুজনের মধ্যে একজন ভারতের হয়ে অভিষেক করে ফেলতে চলেছেন। কারণ দুই ম্যাচে ভারতের বোলিংয়ে ভুবনেশ্বর কুমার বাদে কোনও বোলারেরই খুব একটা বলার মতো কিছু পারফরম্যান্স ছিল না। তার মধ্যে বিশেষ করে উমরান মালিককে নিয়ে খুবই উত্তেজিত কিংবদন্তি ভারতীয় ক্রিকেটার এবং বর্তমানে ধারাভাষ্যকারের কাজ করা সুনীল গাভাস্কার।

তিনি যে উমরান মালিক কে নিয়ে উত্তেজিত তা নিজের মুখেই স্বীকার করে নিয়েছেন সুনীল গাভাস্কার। তিনি বলেছেন, “শেষবার আমি যে তরুণ ভারতীয় ক্রিকেটারকে নিয়ে এতটা উত্তেজিত ছিলাম তার নাম হলো সচিন টেন্ডুলকার। হ্যাঁ আমি চাই ওকে লোক কিন্তু ভারতীয় দলের থিংক ট্যাংকের চিন্তা ভাবনাটা একই রকম নাও হতে পারে তারা হয়তো ভাবতে পারে যে তৃতীয় ম্যাচটি জিতে তারপর চতুর্থ এবং পঞ্চম খেলায় আমরা পরীক্ষা-নিরীক্ষার রাস্তায় হাঁটবো। এছাড়াও ভাইজাগে পিচ কি রকম থাকে সেটাও একটা গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার দলগঠনের ক্ষেত্রে।”

মালিক ২০২১ আইপিএলে অভিষেক করলেও সদ্যসমাপ্ত মরশুমে তিনি নিজেকে একটা আলাদা উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। এর আগে ভারত এমন কোন পেসার পায়নি যে ১৫০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা গতিতে ধারাবাহিকভাবে বোলিং করে যেতে পারে। এখনো ওভার ওভার প্রতি একটু বেশি রান করলেও তার বল খেলতে গিয়ে সমস্যায় পড়েছেন অনেক তারকা ব্যাটারও। সদ্যসমাপ্ত আইপিএলে তিনি চৌদ্দটি ম্যাচে ২২ টি উইকেট নিয়েছেন। একসময় অরেঞ্জ ক‍্যাপের দৌড়েও ছিলেন।

Related Articles

Back to top button