টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতিকলকাতা

সরকারি টাকা আত্মসাৎ করছেন না তো? এবার মুখ্যসচিবকে বিঁধলেন শুভেন্দু অধিকারী

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ এবার বিরোধী দলনেতা (Opposition Leader) শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) প্রশ্নের নিশানায় রাজ্যের মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী (Harikrishna Dwibedi)। সরকারি বাংলোতে থেকেও কী বাড়িভাড়া বাবদ ভাতা নেন রাজ্যের মুখ্যসচিব (Chief Secretary) হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী? এই প্রশ্ন তুলেই মঙ্গলবার সকালে মুখ্যসচিবকে নৈতিকতার বিষয় নিয়ে চিঠি (Letter) পাঠান শুভেন্দু অধিকারী।

মুখ্যসচিবকে দেওয়া চিঠিটি নিজের করা একটি টুইটে জুড়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা। সেখানে তিঁনি লেখেন ‘আমি পশ্চিমবঙ্গের মাননীয় মুখ্য সচিবকে একটি ইমেল পাঠিয়েছি। ডঃ হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী একটি নয় বরং দুটি ভাড়া-মুক্ত সরকারি বাড়ি উপভোগ করছেন। কিন্তু একইসঙ্গে তিঁনি বাড়িভাড়া বাবদ ভাতাও নিচ্ছেন কিনা তা নিশ্চিত করতে বা অস্বীকার করার কথা বলেছি। আশা করি উনি শীঘ্রই সাড়া দেবেন।’ পাশাপাশি তিঁনি লেখেন, নবান্নের সূত্রে তিঁনি জানতে পেরেছেন মুখ্যসচিব সরকারি বাংলোয় থাকেন, অথচ বাড়িভাড়া বাবদ ভাতাও নেন। তা কি সত্যি?” পাশাপাশি শুভেন্দুর প্রশ্ন, সরকারি কর্মচারীরা যেখানে মহার্ঘ ভাতা পাচ্ছেন না, তখন এই বেআইনি কাজ করতে কি নৈতিকতায় বাধছে কিনা?

টুইটে শিশির পুত্র লিখেছেন, হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী যখন রাজ্যের অর্থসচিব ছিলেন, তখনই এই সুবিধা মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্রসচিব পদমর্যাদার অফিসারের জন্য অনুমোদন করেছিলেন। যা সম্পূর্ণ বেআইনি। পাশাপাশি, চিঠিতে হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীর নিউটাউনের ফ্ল্যাটের উল্লেখ করে তিঁনি বলেন, ‘আপনার একটি ৫৯২০ স্কোয়ারফিট আয়তনের ফ্ল্যাট রয়েছে। ওই ফ্ল্যাট থেকে আপনি বছরে ১৫ লক্ষ ৮৪ হাজার টাকা ভাড়া পান। বাজার দরের ১৬ শতাংশ হারে কেউ ভাড়া পায় না। বড় জোর ৬ শতাংশ পাওয়া যায়।’

পাশাপাশি নিউটাউনের ইউনিওয়ার্ল্ড সিটিতে মুখ্যসচিবের ২২০৪ স্কোয়ার ফিটের ফ্ল্যাট রয়েছে যার বার্ষিক ভাড়া তিঁনি ৪.৮ লক্ষ টাকা পান বলে উল্লেখ করেছেন বিরোধী দলনেতা। শুভেন্দুর জিজ্ঞাসা, কলকাতার কাছে মুখ্যসচিবের দুটো ফ্ল্যাট রয়েছে, তাও তিনি সরকারি বাংলোয় থাকেন। এরপরেও কি মুখ্যসচিব সত্যিই বাড়িভাড়া বাবদ ভাতা নিয়ে থাকেন? এই প্রশ্নের উত্তরই ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ আকারে সাতদিনের মধ্যে আইএস হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীকে জানাতে বলেছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। পাশাপাশি চিঠি জবাব না পেলে , সব অভিযোগ সত্যি বলে মেনে নেবেন বলেও জানান তিঁনি। সেক্ষেত্রে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা।

Related Articles