হাইওয়েতে ভয়াবহ দুর্ঘটনা! মৃত্যু ৩৭ এর বিধায়কের, নিছক দুর্ঘটনা নাকি হত্যা? তদন্তে পুলিশ

বাংলা হান্ট ডেস্ক : শুক্রবার সাত সকালে ভয়াবহ দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তেলেঙ্গানার (Telangana) ভারত রাষ্ট্র সমিতির বিধায়ক জি লাস্য নন্দিতা (Lasya Nandita)। পুলিশ সূত্রে খবর, শুক্রবার সকালে এই সড়ক দুর্ঘটনাটি ঘটেছে তেলাঙ্গানার সাঙ্গারেডি জেলার পাতানচেরুতে আউটার রিং রোডে। চালক বেঁচে গেলেও ঘটনাস্থলেই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে বিধায়কের। তারপর থেকেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

   

পুলিশ সূত্রে খবর, মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে ভোর সাড়ে ৬টা নাগাদ। মারুতি এক্সএল৬ মডেলের গাড়ি করে ফিরছিলেন তিনি। হঠাৎ করেই গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন গাড়ির চালক। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাড়ি গিয়ে ধাক্কা মারে হাইওয়ের ধারে এক রেলিংয়ে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় সেকেন্দ্রাবাদ ক্যানটমেন্টের বিধায়কের।

দুর্ঘটনায় নন্দিতার মৃত্যু হলেও বেঁচে গিয়েছেন গাড়ির চালক। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনার পর উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে তেলেঙ্গানার রাজ্য রাজনীতি। এটি নিছকই দূর্ঘটনা নাকি এর পেছনে রয়েছে কোনও রাজনৈতিক যোগসূত্র সেটাও খতিয়ে দেখতে শুরু করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন : কাটল ‘আধার’ জট, UIDAI নিল বড় পদক্ষেপ! আর সমস্যা হবেনা কারোরই

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, নন্দিতার বাবা প্রয়াত জি সায়ান্নাও বিআরএস-এর বিধায়ক ছিলেন। নন্দিতার রাজনীতিতে পদার্পণ বাবার হাত ধরেই। বিআরএস-র পড়ন্ত বেলাতেও সেকেন্দ্রাবাদে নিজের আসন ধরে রেখেছিলেন তিনি। এর আগে এই আসন ছিল তার বাবা সায়ান্নার দখলে। ২০২৩ সালে বাবার মৃত্যুর পর তার হাতেই তুলে দেওয়া হয় এই আসনের দায়ভার।

আরও পড়ুন : বলতে হবে ‘নাম, জাত’ প্রকাশ্যে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে জনতাকে উস্কানির অভিযোগ! ভাইরাল রাহুলের ভিডিও

lasya nanditha 232836283 16x9 0

জেনে অবাক হবেন যে, এই প্রথমবার দুর্ঘটনার কবলে পড়েননি তিনি। এর আগেও একাধিকবার সড়ক দুর্ঘটনার সম্মুখীন হন নন্দিতা। নালগোন্ডা থেকে হায়দরাবাদ ফেরার পথে মারিগুড়া জংশনে একবার সড়ক দুর্ঘটনার সম্মুখীন হন তিনি। কয়েকদিন আগে চন্দ্রশেখর রাওয়ের জনসভা থেকে ফেরার সময়ও একবার সড়ক দুর্ঘটনার কবলে পড়েন প্রয়াত বিধায়ক। আগের দু’বার দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে ফিরলেও এবার আর তা হলনা। আর সেই কারণেই মৃত্যুকে স্বাভাবিক মনে করছেনা তদন্তকারী কর্মকর্তারা।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর