মলয়ের মাথায় বাজ! বড় রায় দিল হাইকোর্ট, এবার কী কপাল পুড়তে চলেছে রাজ্যের আইনমন্ত্রীর?

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : দিল্লি হাইকোর্টের (Delhi Highcourt) দ্বারস্থ হয়েও রক্ষাকবচ পেলেনন রাজ্যের আইনমন্ত্রী (Law Minister) মলয় ঘটক (Moloy Ghatak)। উলটে আইনমন্ত্রী মলয় ঘটকের আবেদনে বিস্ময় প্রকাশ করল দিল্লি হাই কোর্ট। উল্লেখ্য, বেআইনি কয়লা পাচার মামলায় ভবিষ্যতে ইডি (Enforcement Directorate) যাতে তাকে আর তলব না করে সেই মর্মে আর্জি জানিয়েছিলেন আইনমন্ত্রী। তবে আদালতের স্পষ্ট বক্তব্য, এই বিষয়ে মলয়ের আবেদনে কোনও সাড়া দেওয়া হবে না।

দিল্লি হাইকোর্টের দাবি, মামলাকারীকে গত দু’বছরে ১২ বার তলব করেছে ইডি। তবে তার মধ্যে মাত্র একবারই তিনি ইডি-র মুখোমুখি হয়েছেন! আর সেই কারণেই তাকে আর কোনোরকম রক্ষাকবচ নয়‌। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০২১ সালে বেআইনি কয়লা পাচার কাণ্ডে মলয় ঘটকের নাম উঠে আসে। তারপর গত দু বছরে মোট ১২ বার ইডির পরোয়ানা গেছিল আইনমন্ত্রীর দুয়ারে। তবে একবার ছাড়া প্রত্যেকটি তলবকেই অগ্রাহ্য করেন তিনি। এরপর তার কাছে সমনও পাঠানো হয় বলে খবর।

যদিও রাজ্যের আইনমন্ত্রীর দাবি, কলকাতায় ইডি-র অফিস থাকা সত্ত্বেও তারা ইচ্ছাকৃত ভাবে দিল্লির অফিসে ডেকেছে। মন্ত্রীর আশঙ্কা, ইডির দিল্লি অফিসে গেলে মানসিক এবং শারীরিক নির্যাতন করা হতে পারে। তবে ইডি যাতে দিল্লির বদলে কলকাতায় জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং ইডি যাতে ভবিষ্যতে সমন পাঠানো থেকে বিরত থাকে সেই আর্জি নিয়ে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিনি। তবে আদালত তার ডাকে সাড়া দেয়নি।

আরও পড়ুন : TRP-তে বড় রদবদল, এবারও প্রথম তিনে নেই ‘অনুরাগের ছোঁয়া’! খেল দেখালো জি বাংলার এই মেগা

ইসিআইআর খারিজ করে দেওয়ার আবেদনে কোনও কর্ণপাত করেনি আদালত। উলটে মন্ত্রীর এই আবেদন দেখে বিস্ময় প্রকাশ করে স্বর্ণকান্ত শর্মা স্পষ্ট জানিয়ে দেন যে, এই বিষয়ে তার কোনও আবেদনই আর শোনা যাবেনা। তবে অপর দাবিটির সাথে সহমত পোষণ করেছে মহামান্য আদালত। দিল্লি হাইকোর্টের গত ৫ সেপ্টেম্বরের রায় বহাল রেখেই বিচারপতি জানান, মলয়কে তাদের কলকাতার অফিসে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারবে ইডি।

আরও পড়ুন : শনিতেই ৭৫ কিমি বেগে উঠবে ঘূর্ণিঝড়! কমলা সতর্কবার্তা একাধিক জেলায়, জানুন IMD রিপোর্ট

barandbench 2023 05 38cb641a 3c9e 48bd 8a38 bbe48c2f655c 35

হাজিরার জন্য কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ২৪ ঘণ্টা আগে নোটিস পাঠাতে পারবে রাজ্যের আইনমন্ত্রীকে। এবং সেই নোটিসের কপি পাঠাতে হবে পুলিশ কমিশনার এবং রাজ্যের মুখ্য সচিবকে। সেই সঙ্গে আদালত এটাও জানিয়েছে, ইডি অফিসারদের কাজে কোনও ভাবেই বাধা দেওয়া যাবে না। পাশাপাশি মলয়ের হাজিরার দিন পর্যাপ্ত পুলিশি নিরাপত্তাও রাখতে হবে এবং জিজ্ঞাসাবাদে যেন কোনও সমস্যা না হয় সেই বিষয়েও নজর রাখার পরামর্শ দিয়েছে আদালত।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর