টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

শারীরিক, মানসিক নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে দেখে নেওয়ার হুমকি! বোমা ফাটালেন মদন মিত্রের পুত্রবধূ

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এবার শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন মদন মিত্রের পুত্রবধূ স্বাতী রায়। মদন মিত্র ও তাঁর বড় ছেলে স্বরূপ মিত্রের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুলেছেন স্বাতী। পাশাপাশি, প্রাণ বাঁচাতে তিনি অন্যত্র চলে যাচ্ছেন বলেও জানিয়েছেন।

শনিবার নিজের প্রোফাইল থেকে ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে পুরো ঘটনাটি তুলে ধরেন স্বাতী। সেখানে তিনি অভিযোগ করেন যে, বিয়ের কয়েক মাস পরই বিভিন্ন অত্যাচারের সম্মুখীন হন তিনি। তাঁর স্বামীর “আসল চেহারা” জানতে পারার প্রসঙ্গে স্বাতী জানান তাঁর স্বামী তথা মদন মিত্রের ছেলে স্বরূপ মানসিকভাবে অসুস্থ।

শুধু তাই নয়, মুঠো মুঠো শক্তিশালী ঘুমের ওষুধ খাওয়ার পাশাপাশি স্বরূপ নিয়মিত মদ্যপান করেন বলেও দাবি করেছেন স্বাতী। এছাড়াও তিনি জানান যে, তাঁকে দিনের পর দিন মারধর করতেন তাঁর স্বামী। প্রথমটায় অবশ্য শ্বশুর-শাশুড়ি বাধা দিলেও শেষে কোনো লাভ হয়নি।

বরং তাঁকে ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের শ্বশুরবাড়ির পরিবারের তরফে হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে জানান স্বাতী। দিনের পর দিন চলা এই নির্যাতনের জেরে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন বলেও ওই ভিডিয়োতে জানিয়েছেন তিনি। তবে, এখন ছেলের কথা ভেবে স্বাতী বাঁচতে চান। যেই কারণে তিনি দাবি করছেন, প্রাণের ভয়ে শহর ছেড়ে চলে যেতে হচ্ছে তাঁকে।

যদিও, এই বিষয়ে কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্র জানিয়েছেন যে, “আমি শুধু এটুকু জানি ও বছর দু’য়েক আগে বাড়ি ছেড়ে চলে গিয়েছে।” তিনি আরও বলেন, “বিবাহ সংক্রান্ত ব্যাপারে স্বামী ও স্ত্রী-ই সবথেকে ভালো উত্তর দিতে পারে। সবটা জানা সম্ভব নয়। তবে খুব দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা।”

এদিকে, বিধায়কের ওপর ওঠা অভিযোগের প্রসঙ্গে মদন জানান যে, “আমার মতো একজন ভদ্রলোক যদি কু কথা বলে থাকে, তাহলে কু কথা বলার মতো প্রসঙ্গ নিশ্চয়ই তৈরি হয়েছিল।” পাশাপাশি, থানায় মামলা দায়ের হল না কেন, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন মদন।

এছাড়াও, স্বরূপের ঘুমের ওষুধ খাওয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “বিশ্বের সব বুদ্ধিদীপ্ত মানুষ, যাঁরা বেশি মাথা খাটান, তাঁদের ঘুমের ওষুধ খেতে হয়। আমি নিজেও খাই। তবে, ছেলের কথা বলতে পারব না।”

Related Articles

Back to top button