টাইমলাইনভারত

হয়ে গেছিল শেষকৃত্য, শোকে মূর্ছিত পরিবার, আচমকাই মেয়ে এসে বলল- আমি বেঁচে আছি

Bangla Hunt Desk: প্রতিদিনই এই পৃথিবীতে নানান ধরনের আজব ঘটনা ঘটতে দেখা যায়। বিহার (Bihar) থেকে সম্প্রতিকালে এমন এক আজব ঘটনার দৃষ্টান্ত উঠে এসেছে, যেখানে মৃত মানুষ ফিরে এসে বলল আমি বেঁচে আছি। ভাবতে অবাক লাগলেও, এই ঘটনাটা কিছুটা এরকমই।

দায়ের করা হয় অপহরণের মামলা
গত ২২ শে আগস্ট বিহারের রহিমাপুরেের বাসিন্দা মেনকার বাবা তাঁর মেয়েকে খুঁজে না পাওয়ার অপহরণের একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর পুলিশ তদন্ত শুরু করে। তল্লাশি চালিয়ে তারা এমন একটি মেয়ের লাশ খুঁজে পায়, যাকে ঘর্ষণ করে খুন করা হয়েছে। হত্যাকারীরা পরিচয় লোপাটের জন্য ওই মেয়েটির লাশটিকে অ্যাসিড দিয়ে পুরিয়ে দেওয়ারও চেষ্টা করে।

অন্তিম সংস্কার করা হয় মেয়ের
পুলিশের কাছ থেকে লাশের বর্ণনা মেয়ে নিজের মেয়ের সাথে মিল খুঁজে পাওয়ায় পরিবার তাঁদের মেয়েকে মৃত বলে মনে করে নেয়। কিন্তুদিন পর সব নিয়ম কাজ মেনেই অন্তিম সংস্কারের সমস্ত কাজ করা হয়। এরপর শুরু হয় আরও এক তদন্ত। কে বা কারা এমন অবস্থা করল মেয়েটির? এই কেসের তদন্ত করে দোষীদের খুঁজতে শুরু করে পুলিশ।

ফিরে আসে মৃতা মেয়ে
এই ঘটনার ১০ দিন পর আচমাকই সামনে আসে এক নতুন তথ্য, যা সম্পূর্ণ কেসের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। মেনকা নিজেই ফোন করে জানায় যে সে বেঁচে আছে। এমনকি একটি ভিডিও বার্তা পাঠায় তাঁর পরিবারকে, যেখানে মেনকা বলে, ‘আমি বেঁচে আছি। আমি বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছি। কিন্তু আমার পরিবারের লোকজন আমার মৃত্যুর মিথ্যে মামলা করেছে’।

নতুন করে আবারও তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ
মৃত মেয়েকে ফিরে আসায় নতুন করে আরও একটি সমস্যা সৃষ্টি হয়। এতদিন পুলিশ ওই মেয়েটির লাশকে মেনকার লাশ বলে মনে করে সেভাবেই তদন্ত করছিল। কিন্তু বর্তমানে মেনকা সামনে আসায়, ওই লাশটির আসল পরিচয় কি? এবং কারা এমন নৃশংস কাজ করল, তা নিয়ে নতুন করে আবারও তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button