বিপুল হারে কমেছে ভোজ্য তেলের দাম! নতুন রেট শুনে আনন্দে লাফাবেন

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে যখন শাক-সবজি থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম ক্রমশ উর্ধ্বমুখী হচ্ছে এবার ঠিক সেই আবহেই একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সামনে এসেছে। এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, কেন্দ্রীয় সরকারের (Central Government) গৃহীত সঠিক পদক্ষেপ এবং বিশ্বব্যাপী মূল্য হ্রাসের কারণে গত এক বছরে পরিশোধিত সূর্যমুখী তেল, সয়াবিন তেল এবং পামোলিনের খুচরো দাম (Edible Oil Price) বিপুলহারে হ্রাস পেয়েছে।

   

আরও জানা গিয়েছে যে, সূর্যমুখী তেল, সয়াবিন তেল এবং পামোলিনের দামে যথাক্রমে ২৯ শতাংশ, ১৯ শতাংশ এবং ২৫ শতাংশের হ্রাস ঘটেছে। ইতিমধ্যেই এই প্রসঙ্গে লোকসভায় লিখিতভাবে কেন্দ্রীয় খাদ্য ও উপভোক্তা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী সাধ্বী নিরঞ্জন জ্যোতি জানিয়েছেন, “আন্তর্জাতিক বাজারে ভোজ্যতেলের দাম হ্রাসের সুবিধা যাতে গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে যায় তা নিশ্চিত করতে কেন্দ্রীয় সরকার ভোজ্য তেলের খুচরো মূল্যের উপর কড়া নজর রেখেছিল।”

পাশাপাশি, তিনি আরও জানিয়েছিলেন যে, প্রথমসারির ভোজ্য তেলের অ্যাসোসিয়েশন এবং শিল্প প্রতিষ্ঠানের সাথে নিয়মিতভাবে এই বিষয়ে বৈঠকও করা হয়। এছাড়াও, আন্তর্জাতিক বাজারে দামের পতনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে খুচরো দাম কমানোর বিষয়ে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, “২০২৩-এর ২০ জুলাই পর্যন্ত, অপরিশোধিত সয়াবিন তেল, সূর্যমুখী তেল, পাম তেল এবং পরিশোধিত পাম তেলের মতো প্রধান ভোজ্য তেলের আন্তর্জাতিক দাম গত বছর থেকে গুরুত্বপূর্ণ ভাবে হ্রাস পেয়েছে।”

মন্ত্রী জানান, “সরকারের ক্রমাগত প্রচেষ্টার কারণে, পরিশোধিত সূর্যমুখী তেল, সয়াবিন তেল এবং আরবিডি পামোলিয়ানের খুচরো মূল্য এক বছরে যথাক্রমে ২৯.০৪ শতাংশ, ১৮.৯৮ শতাংশ এবং ২৫.৪৩ শতাংশ কমে গিয়েছে।”

The price of edible oil has come down at a huge rate

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, অভ্যন্তরীণ বাজারে ভোজ্য তেলের দাম নিয়ন্ত্রণ এবং সেটি সহজলভ্য করার জন্য, কেন্দ্রীয় সরকার গত দু’বছরে অপরিশোধিত তেলের পাশাপাশি পরিশোধিত ভোজ্য তেলের আমদানি শুল্ক কয়েকবার কমিয়েছে।