হুশ করে পৌঁছে যান সিকিম! ঝড়ের গতিতে এগোচ্ছে রেল প্রোজেক্ট, বাকি শুধু এতটুকু কাজ

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: দেশের (India) বিভিন্ন অংশে বর্তমান সময়ে হচ্ছে রেলপথ (Indian Railways) সম্প্রসারণের কাজ। সেই রেশ বজায় রেখেই। এবার সরাসরি ট্রেনের মাধ্যমে যাওয়া সম্ভব হবে সিকিমে (Sikkim)। যার ফলে প্রত্যক্ষভাবে লাভবান হবেন পর্যটকরা। উল্লেখ্য যে, এতদিন পর্যন্ত দার্জিলিং (Darjeeling) যাওয়ার ক্ষেত্রে নিউ জলপাইগুড়ি অথবা শিলিগুড়ি রেল স্টেশন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করত। পাশাপাশি, সিকিমে যেতে হলেও এই দুই স্টেশনের ওপর করতে হত নির্ভর।

এদিকে, ওই স্টেশনগুলি থেকে সিকিম যেতে লেগে যায় বেশ কয়েক ঘন্টা সময়। তবে এবার, যাত্রীদের কথা মাথায় রেখে এবং সিকিমের যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আরও উন্নত করে তুলতে বড় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে রেলের তরফে। যার জন্য চলছে জোরকদমে কাজ। মূলত, ভারতীয় রেলের তরফে এমন একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যেটির মাধ্যমে আপনি কলকাতা থেকেই সরাসরি পৌঁছে যেতে পারবেন সিকিমে।

The work of Sikkim Rail Project is progressing rapidly.

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, বর্তমানে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চলছে রংপো রেলওয়ে স্টেশনের কাজ। মূলত তিনটি পর্যায়ে এই সমগ্র কাজ শেষ করা হচ্ছে। যেটির প্রথম পর্যায়ে লাইন পাতার কাজ চলছে সেবক থেকে রংপো পর্যন্ত। পাশাপাশি দ্বিতীয় পর্যায়ে রংপো থেকে গ্যাংটক এবং তৃতীয় পর্যায়ে গ্যাংটক থেকে নাথুলা পর্যন্ত রেললাইন পাতা হবে বলেও জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: আর নেই বেশি সময়! দেশজুড়ে কেন বন্ধ হচ্ছে OnePlus-এর ফোন বিক্রি? সামনে এল কারণ

এমতাবস্থায় এই কাজের সাথে যুক্ত আধিকারিকরা জানিয়েছেন যে, এই টানেলের ২০ মিটার অংশ ১০ নম্বর জাতীয় সড়কের নিচে তিস্তা নদীর কাছে রয়েছে। যার ফলে নরম মাটিতে খনন করার বিষয়টিই এই পুরো প্রকল্পের সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং কাজ ছিল। যদিও, এই কাজ অধিকাংশই শেষ হয়েছে। পাশাপাশি, রেলের আধিকারিকরা এটাও জানিয়েছেন যে, তাঁরা “সেকেন্ড পাইলিং পদ্ধতি” ব্যবহার করে এই কাজ সম্পন্ন করেছেন।

আরও পড়ুন: ভারতে iPhone উৎপাদনে উঠবে ঝড়! এবার Pegatron অধিগ্রহণের পথে টাটা গ্রুপ

রেলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, IIT দ্বারা পরীক্ষা করার পরে, IRCON-এর আধিকারিকরা খনি অপারেশনের দক্ষতা বিচার করে একটি কেস স্টাডি করেছিলেন। এদিকে সেবক এবং সিকিমের রংপোর মধ্যে মোট ৪৪.৯৬ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের রেল লাইন রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। পাশাপাশি এই নির্দিষ্ট দূরত্বের মধ্যে দিয়ে যে যে স্টেশন গুলি থাকবে সেগুলি হল সেবক, রিয়াং, তিস্তা বাজার, মেল্লি এবং রংপো। এগুলির মধ্যে মোট ১৪ টি টানেল সহ ২২ টি সেতু থাকবে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর