প্রাচীনকালে বাকিদের তুলনায় সবথেকে এগিয়ে ছিল ভারত! রইল ৭ টি বড় প্রমাণ

বাংলা হান্ট ডেস্ক: আমাদের দেশ ভারতবর্ষ (India) হল একটি সুপ্রাচীন দেশ। পাশাপাশি, হাজার হাজার বছর আগেও এই দেশের সমৃদ্ধি এবং উন্নতি ছিল চোখে পড়ার মতো। একাধিক ভাষা এবং ধর্মের মানুষের বসবাসে বরাবরই সমৃদ্ধ হয়েছে ভারত। এছাড়াও, এই দেশের ঐতিহাসিক গুরুত্বও যথেষ্ট। সর্বোপরি, ভারতের সাফল্যের জয়গাথার উল্লেখ রয়েছে সুপ্রাচীন গ্রন্থগুলিতেও। এমতাবস্থায়, বর্তমান প্রতিবেদনে আজ আমরা আপনাদের কাছে এমন সাতটি বিষয়ের প্রসঙ্গ উপস্থাপিত করব যেগুলি প্রমাণ করে দেবে যে, প্রাচীনকালে বাকিদের তুলনায় ভারত কতটা এগিয়ে ছিল।

১. প্রাচীনকালে ভারতে বিশ্বের উল্লেখযোগ্য এবং দর্শনীয় কিছু বিশ্ববিদ্যালয় নির্মিত হয়েছিল। যেগুলির মধ্যে নালন্দা এবং তক্ষশীলা বিশ্ববিদ্যালয় ছিল অন্যতম।

২. বর্তমান সময়ে চুলের যত্ন নিতে এবং পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে শ্যাম্পু নিয়মিত ব্যবহার করেন সবাই। কিন্তু জেনে অবাক হবেন যে, শ্যাম্পু কিন্ত আবিষ্কৃত হয়েছিল প্রাচীন ভারতেই।

৩. এর পাশাপাশি ভারতে উদ্ভব হয়েছে কিছু জনপ্রিয় খেলাধূলারও। দাবা এবং সাপ-সিঁড়ির মতো খেলাধূলার উদ্ভব কয়েক শতাব্দী আগেই ভারতে হয়েছিল। পরবর্তীকালে এই খেলাগুলি সমগ্ৰ বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয়তা অর্জন করে।

৪. এছাড়াও জানিয়ে রাখি যে, প্রাচীনকাল থেকেই ভারতে হিরের খনন শুরু হয়ে গিয়েছিল। বর্তমানে বিশ্বের প্রাচীনতম এবং বিখ্যাত হিরেগুলির অধিকাংশই ভারতে পাওয়া গিয়েছিল।

৫. এদিকে, বহু বছর আগে থেকেই চিকিৎসার ক্ষেত্রে ভারত বাকি দেশগুলির তুলনায় অনেকটাই এগিয়ে ছিল। সুশ্রুত এবং চরকের মতো চিকিৎসকরা ভারতীয় চিকিৎসা ব্যবস্থাকে এক আলাদা পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছিলেন।

৬. গণিতের ক্ষেত্রেও কিন্তু ভারতের অবদান অনস্বীকার্য। আমাদের দেশেই আর্যভট্ট “০” (শূন্য) আবিষ্কার করেছিলেন। যা গণিতের দুনিয়া ছাড়াও বিভিন্ন পরিমাপের ক্ষেত্রে নবদিগন্ত উন্মোচিত করেছিল।

whatsapp image 2023 05 26 at 3.02.11 pm

৭. জেনে অবাক হবেন যে, কয়েক হাজার বছরের পুরোনো বিশ্বের সবথেকে অ্যাডভান্সড টয়লেট সিস্টেমের সন্ধান ভারতেই পাওয়া গিয়েছিল।