ভাবতে হবে না বিনিয়োগের কথা! ঘরে বসেই আসবে কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা, শুরু করুন এই ব্যবসাটি

বাংলাহান্ট ডেস্ক: ভালো একটা চাকরি খুঁজতে খুঁজতে জুতো ক্ষয় হয়ে যাওয়ার অবস্থা। আবার ব্যবসা করবেন সে পরিস্থিতিও নেই। কারণ মূলধন কোথায়? শুধু আপনি কেন এমন বহু মানুষ রয়েছেন যাঁরা অর্থ উপার্জন করতে গিয়ে রীতিমত নাজেহাল হয়ে পড়ছেন। না পাচ্ছেন চাকরি, না শুরু করতে পারছেন ব্যবসা। কিন্তু জানেন কি বর্তমানে মোটা অঙ্কের মূলধন ছাড়াও ব্যবসা করা সম্ভব? তাও আবার বাড়িতে বসেই মোটা টাকা উপার্জন করা সম্ভব। এবার নিশ্চয়ই ভাবছেন কোন ব্যবসায় এত সুবিধা রয়েছে? আজ সে কথাই জানাবো আপনাকে।

   

সাম্প্রতিক সময়ে সর্বাধিক জনপ্রিয় ভিডিও মাধ্যম হল ইউটিউব। প্রতিটি পরিবারেই স্মার্টফোন রয়েছে। প্রতিদিন কোটি কোটি ইউজার ইউটিউবে নানা ধরনের ভিডিও দেখেন। ইউটিউবে কনটেন্ট ক্রিয়েট করে লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জন করছেন বহু ইউটিউবার। বেশ কয়েকজন ইউটিউবার ইতিমধ্যেই দারুণ সেলিব্রেটি হয়ে উঠেছেন। তাদের ফলোয়ারের সংখ্যা শুনলে মাথা ঘুরে যেতে পারে অনেকেরই। লক্ষাধিক তাদের ফ্যান ফলোয়ার। আসলে হবে নাই বা কেন! কারণ ভাগ্যের চাকা কখন কার কীভাবে ঘুরে যায় তা আমরা আগে থেকে কেউ জানি না। তাই আপনি যদি ভিডিও প্ল্যাটফর্মে ব্যবসা করতে চান, তবে ইউটিউব আপনার জন্য একটি সঠিক মাধ্যম হতে পারে। এই ব্যবসার মাধ্যমে আপনিও উপার্জন করতে পারবেন মোটা অঙ্কের টাকা।

আরোও পড়ুন : বিশ্বমানের হবে বিষ্ণুপুর স্টেশন, ৪১ হাজার কোটির প্রকল্প উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর! বড় ঘোষণা সৌমিত্র খাঁয়ের

তবে এর জন্য আপনাকে প্রথমে একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হবে। যদি আপনার ই-মেল আইডি দিয়ে ইউটিউবে সাইন আপ করেন তবে তৈরি হয়ে যাবে ইউটিউব অ্যাকাউন্ট। এখন যদি সেখানে নির্ধারিত তথ্য দিয়ে কনফার্ম বাটনে ক্লিক করেন তবে রেডি হবে আপনার ইউটিউব চ্যানেল। অর্থাৎ আপনার ভাগ্যের চাকা ঘুরে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত।এরপর আপনার নতুন ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করতে হবে। সেটাই হল আপনার কনটেন্ট। চ্যানেলে থাকা প্লাস অপশনটিতে ক্লিক করলে আপনার সামনে একটি পেজ খুলবে। সেখানে আপনার তৈরি ভিডিওটি একটি নাম দিয়ে আপলোড করুন।

আরোও পড়ুন : পাহাড়প্রেমীদের জন্য সুখবর! মাত্র ২০০ টাকাতেই হবে এবার দার্জিলিং ভ্রমণ, আকর্ষণীয় উদ্যোগ NBSTC’র

তবে মনে রাখবেন ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওর পাশাপাশি রাখতে হবে ভিজ্যুয়াল পোস্টও। কিন্তু শখ বা সময় হলো তাই মাঝেমধ্যে একদিন ভিডিও পোস্ট করলেন এমনটা করলে চলবে না! নিয়মিত ভিডিও আপলোড করতে হবে। চাইলে এক বা দুদিন পর পর ভিডিও আপলোড করতে পারেন।তাহলে সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। তবে দীর্ঘদিন গ্যাপ দেবেন না। আপনার পোস্ট করা ভিডিওতে লাইক এবং ভিভ থাকতে হবে। তার জন্য আপনার চ্যানেলটির বিষয়ে পরিচিত সকলের কাছে জানান, প্রচার করুন।

YouTube gave a big update about monetization

আপনার তৈরি ভিডিওটিতে যত বেশি পরিমাণ ভিউ হবে ততই বেশি পরিমাণে উপার্জন হবে। তাই এমন কিছু কনটেন্ট তৈরি করে আপলোড করুন যা সকলের পছন্দ হবে। আপনার চ্যানেলে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার হওয়ার পর গুগল অ্যাডসেন্সের জন্য আবেদন করতে পারবেন। আবেদন গৃহীত হলে আপনি আপনার ভিডিওতে বিজ্ঞাপন যুক্ত করে উপার্জন করতে পারবেন। এর ফলে আপনার উপার্জন আরও বৃদ্ধি পাবে। আর এভাবেই বিনা পুঁজিতে বাড়িতে বসে আপনি লাখ লাখ টাকা উপার্জন করতে পারবেন। তাই এখনও তৈরি করে ফেলুন একটি ইউটিউব চ্যানেল।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর