চোখের পলকে বিক্রি হল ৪ কোটির ৬০০ টি ফ্ল্যাট! মুম্বই নয়, ভারতের এই শহরই হয়ে উঠেছে ধনীদের ঠিকানা

বাংলা হান্ট ডেস্ক: দেশে (India) ধনী ব্যক্তি ও দরিদ্রদের মধ্যে ব্যবধান যে দ্রুতগতিতে বাড়ছে তা সম্পত্তি বিক্রির ঘটনা থেকেই বোঝা যাচ্ছে। একদিকে দেশের জনসংখ্যার একটি বড় অংশ মাথার ওপর ছাদ পাচ্ছে না অন্যদিকে দেশে এমন কিছু মানুষ রয়েছেন যাঁরা খেলনা কেনার মতো কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি কিনে ফেলছেন। ঠিক এই আবহেই এবার একটি বড় আপডেট সামনে এসেছে।

   

এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, গুরুগ্রামে মাত্র কয়েক দিনেই বিক্রি হয়েছে ৪ কোটি টাকার কয়েকশো ফ্ল্যাট। রিয়েল এস্টেট কোম্পানি গোদরেজ প্রোপার্টিজ লিমিটেড এই তথ্য জানিয়েছে। সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুসারে, গোদরেজ প্রোপার্টিজ লিমিটেড হরিয়াণার গুরুগ্রামে তার নতুন বিলাসবহুল আবাসিক প্রোজেক্টের ৬০০ টিরও বেশি ফ্ল্যাট বিক্রি করেছে। শেয়ার বাজারে দেওয়া তথ্যে সংস্থাটি বলেছে যে, তারা গুরুগ্রামের সেক্টর-৪৯-এ গল্ফ কোর্স এক্সটেনশন রোডে অবস্থিত গোদরেজ অ্যারিস্টোক্র্যাট প্রোজেক্টে ২,৬০০ কোটি টাকারও বেশি মূল্যের ফ্ল্যাট বিক্রি করেছে।

This city of India has become the address of the rich

সংস্থাটি ৭৫০ টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করবে: জানা গিয়েছে, সংস্থাটি ৯.৫ একর জুড়ে বিস্তৃত এই আবাসিক প্রোজেক্টের প্রায় ৭৫০ টি অ্যাপার্টমেন্ট তৈরি করবে। যেগুলির প্রতি ইউনিটের প্রারম্ভিক মূল্য প্রায় ৪ কোটি টাকা। এই প্রসঙ্গে সংস্থাটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (সিইও) গৌরব পান্ডে জানিয়েছেন যে, গুরুগ্রাম গোদরেজ প্রোপার্টিজের জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বাজার। এমতাবস্থায়, ২০২৪ সালের মধ্যে গুরুগ্রামে চারটি নতুন প্রোজেক্ট চালু করার বিষয়ে আশা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: আর নয় ডলার, এই দেশ থেকে প্রথমবারের মতো রুপিতে কেনা হল তেল, নয়া ইতিহাসের পথে ভারত

এর আগে DLF এই কারনামা দেখিয়েছিল: সম্প্রতি রিয়েল এস্টেট কোম্পানি DLF লিমিটেড তিন দিনের মধ্যে গুরুগ্রামে অবস্থিত একটি আবাসিক প্রোজেক্টে ১,১৩৭ টি বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্ট বিক্রি করেছে। যেগুলির প্রতিটি ফ্ল্যাটের দাম ছিল ৭ কোটি টাকার বেশি এবং কোম্পানি তাদের ওই বিক্রি থেকে ৮,০০০ কোটি টাকারও বেশি আয় পেয়েছে।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানে নিকেশ হচ্ছে একের পর এক সন্ত্রাসবাদী! প্রাণ বাঁচাতে “আন্ডারগ্রাউন্ড” হাফিজ-আজহার-রহমানরা

জানিয়ে রাখি যে, DLF-এর এই প্রোজেক্টটি গুরুগ্রামের ৬৩ নম্বর সেক্টরে গল্ফ কোর্স এক্সটেনশনে অবস্থিত। সংস্থাটি জানিয়েছে যে এই, প্রোজেক্টটি চালু হওয়ার তিন দিনের মধ্যে ফ্ল্যাটগুলি সম্পূর্ণভাবে বিক্রি হয়ে গেছে। পাশাপাশি, DLF গলফ কোর্স রোডের একটি ফ্ল্যাট ১০০ কোটি টাকায় বিক্রি করেছিল।