আর নয় ডলার, এই দেশ থেকে প্রথমবারের মতো রুপিতে কেনা হল তেল, নয়া ইতিহাসের পথে ভারত

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এবার একটি ঐতিহাসিক পদক্ষেপ গ্রহণ করে এবং ভারতীয় মুদ্রাকে (Indian Rupee) আরও শক্তিশালী করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ হিসেবে ভারত (India) প্রথমবারের মতো সংযুক্ত আরব আমিরশাহী (United Arab Emirates) থেকে অপরিশোধিত তেল কেনার জন্য রুপিতে অর্থ প্রদান করেছে। এই পদক্ষেপটি মূলত দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যে ভারতীয় মুদ্রা রুপির ব্যবহারকে উন্নীত করার জন্য একটি বড় উদ্যোগ। উল্লেখ্য যে, ভারত তার তেলের চাহিদার ৮৫ শতাংশেরও বেশি আমদানির মাধ্যমে গ্রহণ করে। এজন্য দেশকে বড় অঙ্কের ডলার প্রদান করতে হয়। কিন্ত, এবার ভারতীয় মুদ্রায় কেনা হল তেল।

   

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে, ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন (IOC) আবুধাবি ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানি (ADNOC) থেকে ১ মিলিয়ন ব্যারেল অপরিশোধিত তেল কেনার জন্য ভারতীয় রুপি দিয়েছে। এছাড়া রাশিয়া থেকে আমদানি করা অপরিশোধিত তেলের কিছু অংশও ভারতীয় মুদ্রায় পরিশোধ করা হয়েছে।

জানিয়ে রাখি যে, গত জুলাই মাসে ভারত সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর সাথে আবুধাবি ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানির কাছ থেকে অপরিশোধিত তেল কেনার বিনিময়ে ভারতীয় রুপিতে অর্থ প্রদানের জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল। এই প্রসঙ্গে ভারতীয় আধিকারিকরা জানিয়েছেন যে ভারত অন্যান্য সরবরাহকারীদের সাথেও অনুরূপ চুক্তির সন্ধান করছে।

আরও পড়ুন: চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর! উচ্চ মাধ্যমিক পাশেই মিলবে দুর্দান্ত চাকরি, এভাবে করুন আবেদন

শেষ হবে ডলারের আধিপত্য: বিশ্ব অর্থনীতিতে ডলারের আধিপত্যকে চ্যালেঞ্জ করার জন্য, ভারতের মতো একাধিক দেশ বাণিজ্যের জন্য মার্কিন ডলার ব্যবহার করা থেকে দূরে সরে যাচ্ছে এবং পরিবর্তে স্থানীয় মুদ্রায় লেনদেন করতে রাজি হচ্ছে। সেই রেশ বজায় রেখেই, বাণিজ্যিক চুক্তির অধীনে, নয়াদিল্লি এখন UAE এবং সৌদি আরবের তেল রপ্তানিকারকদের সাথে রুপিতে অর্থ প্রদানের জন্য আলোচনা করছে। এদিকে, সাম্প্রতিক মিডিয়া রিপোর্ট বলছে যে, ভারত রাশিয়ার কাছ থেকে তেল কেনার জন্যও ভারতীয় রুপিতে টাকা দেওয়ার চেষ্টা করছে। তবে এখনও বিষয়টি নির্দিষ্টভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানে নিকেশ হচ্ছে একের পর এক সন্ত্রাসবাদী! প্রাণ বাঁচাতে “আন্ডারগ্রাউন্ড” হাফিজ-আজহার-রহমানরা

ভারত কেন এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে: ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক তথা ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক (RBI), আন্তঃসীমান্ত অর্থপ্রদানে রুপির ব্যবহারকে উন্নীত করার প্রচেষ্টায় গত তিন বছরে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক ব্যাঙ্ককে রুপিতে বাণিজ্য করার অনুমতি দিয়েছে। উল্লেখ্য যে, RBI এখনও পর্যন্ত ২২ টি দেশের সাথে রুপিতে বাণিজ্য করতে সম্মত হয়েছে। এদিকে, এটি করার মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী ভারতীয় মুদ্রার প্রচলন শুরু হওয়ার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক স্তরে ডলারের চাহিদা কমাতেও সাহায্য করবে। এর ফলে, বিশ্বব্যাপী মুদ্রার দরপতনে ভারতীয় অর্থনীতি কম ক্ষতিগ্রস্ত হবে। জানিয়ে রাখি যে, তেল কেনার জন্য ডলারে অর্থ প্রদানের প্রথা ১৯৭০ সাল থেকে চলে আসছে।

For the first time, oil was bought from this country for Indian Rupee

ভূ-রাজনৈতিক কারণ: ভারতের জাতীয় মুদ্রায় অর্থ প্রদান করার সিদ্ধান্তটি একটি ভূ-রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক উত্তেজনার মধ্যে কার্যকর হয়েছে। কারণ আমেরিকা একতরফাভাবে রাশিয়া এবং ইরানের সাথে ডলারে বাণিজ্য নিষিদ্ধ করেছিল। জানিয়ে রাখি যে, ডিসেম্বরের আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কেনিয়ার রাষ্ট্রপতি উইলিয়াম রুটো তাঁদের দেশের সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলিকে ভারতীয় রুপির ব্যবহার এবং দুই দেশের মধ্যে উন্নয়ন প্রকল্পের আর্থিক বাস্তবায়নের জন্য কাজ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।