বাংলার তিতাসের দাপটে স্বপ্ন সত্যি মহিলা ভারতীয় দলের, শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে এশিয়ান গেমসে এলো স্বর্ণপদক

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্কঃ টুর্নামেন্ট শুরুর আগে থেকেই তাদের ওপর অনেক প্রত্যাশা ছিল। সেই প্রত্যাশার মর্যাদা রেখে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে অবশেষে এশিয়ান গেমসে (2023 Asian Games) স্বর্ণপদক জিতলো ভারতীয় মহিলা দল (India Women Cricket Team)। লড়াইটা অবশ্য একেবারেই সহজ হয়নি। ফাইনালে শ্রীলঙ্কা রীতিমতো বেগ দিয়েছিল ভারতীয় দলকে। কিন্তু বঙ্গকন্যা তিতাস সাধুর (Titas Sadhu) দাপুটে ফাস্ট বোলিং ভারতীয় দলের স্বর্ণপদক নিশ্চিত করে দেয়।

   

এর আগে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে এক উইকেট হারিয়ে ৮৬ রান তোলার পর ভারতীয় ব্যাটিংয়ের বিপর্যয় ঘটে। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট খুঁইয়ে ১১৭ রানের টার্গেট শ্রীলঙ্কার সামনে রাখতে পেরেছিল ভারত। কিন্তু বল হাতে ভারতীয় সিনিয়র মহিলা দলের হয়ে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে দুর্দান্ত বোলিং করেন চুঁচুড়ার তিতাস।

পাওয়ার প্লে-তে বোলিং করতে নেমে নিজের প্রথম ৩ ওভারে একটি মেডেন সহ মাত্র ২ রান দিয়ে ৩ টি উইকেট নেন তিতাস। এরপর শ্রীলঙ্কার পক্ষে ম্যাচে ফেরা খুব কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। তবু লড়াই চালিয়েছিল তারা। কিন্তু পিচ ব্যাটিংয়ের পক্ষে একেবারেই উপযোগী ছিল না এবং শেষদিকে স্পিনাররা ভালোই সাহায্য পাচ্ছিল। শেষপর্যন্ত নিজেদের টার্গেটের থেকে ১৯ রান দূর এই থেমে যেতে হয় শ্রীলঙ্কাকে।

ম্যাচের ফেরার পুরস্কার অবশ্যই পাবেন তিতাস সাধু। ঝুলন গোস্বামীর উত্তরসূরি এই বঙ্গ পেস বোলার এদের নিজের ৪ ওভারে একটি মেডেন দিয়ে মাত্র ৬ রানসহ ৩ টি উইকেট তুলে নেন। গোটা বিশ্বের সামনে অবশ্য প্রথমবার এমন পারফরম্যান্স করেননি তিনি। এর আগে অনূর্ধ্ব ১৯ মহিলা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালেও ঠিক এমনই অভূতপূর্ব পারফরম্যান্স করে নজর কেড়েছিলেন তিনি। আজ থেকে সিনিয়র দলের হয়ে এক নতুন অধ্যায়টা অপূর্বভাবে আরম্ভ করলেন এই বাংলার তারকা।

শুধুমাত্র তিতাস নয় আজ অসাধারণ পারফরম্যান্স করেছেন স্মৃতি মান্ধানাও। ব্যাট হাতে তার ৪৬ রানের ইনিংসটি খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল প্রথম ইনিংসে। শ্রীলংকার স্পিনারদের কে সামলে জ্যামিমা রদ্রিগের সঙ্গে তিনি ৭৩ রানের একটি পার্টনারশিপ গড়ে দিয়ে গিয়েছিলেন যা ভারতকে জয় পেতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

 

সম্পর্কিত খবর