একাই একশো! নির্বাচনী বন্ডে তৃণমূলকে ৫৪২ কোটি চাঁদা ‘Dear Lottery’র মালিকের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ সর্বোচ্চ নির্বাচনী বন্ড ক্রেতা তিনি। ইলেক্টোরাল বন্ড (Electoral Bonds) সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই ‘লটারি কিং’ ওরফে সান্তিয়াগো মার্টিনকে নিয়ে শুরু হয়েছিল চর্চা। এবার জানা গেল, তিনি সবচেয়ে বেশি অনুদান দিয়েছেন বাংলার শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে। নির্বাচনী বন্ড সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ্যে আসার পর দেখা যায়, ‘ফিউচার গেমিং’ নামক একটি সংস্থার কর্ণধার সান্তিয়াগো মার্টিন (Santiago Martin) রাজনৈতিক দলগুলিকে ১৩৬৮ কোটি টাকার অনুদান দিয়েছেন। এবার জানা গেল, এই মোট অনুদানের প্রায় ৪০% গিয়েছে তৃণমূলের (TMC) ঝুলিতে।

   

বৃহস্পতিবার ইলেক্টোরাল বন্ড সংক্রান্ত সকল তথ্য নির্বাচন কমিশনে জমা করেছে এসবিআই। সেই তথ্য কমিশনের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে। সেখান থেকে দেখা গিয়েছে, ‘লটারি কিং’য়ের (Lottery King) সংস্থা থেকে সবচেয়ে বেশি অনুদান পেয়েছে জোড়াফুল শিবির। অনুদানের অঙ্কটা প্রায় ৫৪২ কোটি টাকা। তৃণমূল ছাড়া তামিলনাড়ুর শাসক দল ডিএমকে-কেও মোটা টাকা অনুদান দিয়েছে সান্তিয়াগো মার্টিনের সংস্থা।

আগেই জানা গিয়েছিল, নির্বাচনী বন্ড থেকে সর্বোচ্চ আয় করা দল হল বিজেপি। ৬০০০ কোটিরও বেশি অনুদান পেয়েছে পদ্ম-শিবির। দ্বিতীয় স্থানেই নাম ছিল তৃণমূলের। ইলেক্টোরাল বন্ড থেকে তাঁদের ঝুলিতে এসেছিল প্রায় ১৩৯৭ কোটি টাকা। ঘাসফুল শিবিরের অনুদানের এই টাকার বেশিরভাগটাই এসেছে ‘লটারি কিং’য়ের সংস্থা থেকে।

আরও পড়ুনঃ কলকাতায় ৪ তলা অবৈধ নির্মাণের উপর মোবাইল টাওয়ার! শুনেই বিরাট নির্দেশ বিচারপতি সিনহার

সান্তিয়াগো মার্টিনের সংস্থার ছাড়া কলকাতার ‘আরপিএসজি’ গ্রুপও তৃণমূলকে মোটা টাকার অনুদান দিয়েছে। চারটি শাখা মিলিয়ে তারা প্রায় ৩৯২ কোটি টাকার অনুদান দিয়েছে। এছাড়া কলকাতার প্রখ্যাত কেভেন্টার সংস্থা থেকে ৬৫ কোটি টাকা অনুদান পেয়েছে তৃণমূল।

lottery king santiago martin donated tmc through electoral bonds

প্রসঙ্গত, শীর্ষ আদালতের নির্দেশ অনুসারে ইউনিক নম্বর সহ নির্বাচনী বন্ডের যাবতীয় তথ্য কমিশনে জমা করেছে এসবিআই। এর আগেই অবশ্য ডিএমকে জানিয়েছিল, ‘ফিউচার গেমিং’ সংস্থার তরফ থেকে তাদের প্রায় ৫০৯ কোটি টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে। তবে এবার জানা গেল, তৃণমূলকে দেওয়া অনুদানের পরিমাণ সেই অঙ্কটাকেও ছাপিয়ে গিয়েছে। অন্যদিকে কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপিকে ১০০ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছে মার্টিনের সংস্থা।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর