টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

বিজেপির অপমৃত্যু! দিলীপ-শুভেন্দুর ছবিতে মালা ঝুলিয়ে তর্পণ করলেন মদন

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বিরোধীদের উদ্দেশ্য করে একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য হোক কিংবা বর্ণময় জীবন যাপন, সর্বদাই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে বিরাজ করেন তৃণমূল কংগ্রেস (Trinamool Congress) নেতা মদন মিত্র (Madan Mitra)। রাজনীতির পাশাপাশি নিজ ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও খবরের শিরোনামে থাকেন তিনি। এদিন মহালয়া (Mahalaya) উপলক্ষ্যে তর্পণ দিতে গিয়েও একইভাবে বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন কামারহাটির (Kamarhati) তৃণমূল বিধায়ক।

কি করেছেন মদন মিত্র? এদিন বাবুঘাটে তর্পণ সারতে গিয়ে বিজেপি সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং শুভেন্দু অধিকারীর ছবিতে মালা পরিয়ে দেন তিনি। একইসঙ্গে তাঁর দাবি, “রাজনৈতিক অপমৃত্যু হওয়ার কারণে আমি বিজেপির তর্পণ করে গেলাম।” মদনের এহেন বক্তব্যের ফলে স্বাভাবিকভাবেই চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

উল্লেখ্য, মহালয়ার দিন পিতৃপুরুষদের উদ্দেশ্যে তর্পণ সারে তাদের বংশধরেরা। একইভাবে এদিন কালো সানগ্লাস এবং ধুতি-উড়নি পরে তর্পণ করতে পৌঁছে যান মদন মিত্র। তবে এক্ষেত্রে পিতৃপুরুষদের নয়, বরং দিলীপ ঘোষ এবং শুভেন্দু অধিকারীকেই মালা পরিয়ে দিতে দেখা যায় তাঁকে। পরবর্তীতে মন্ত্র পড়তেও দেখা যায় তৃণমূল বিধায়ককে।

এই প্রসঙ্গে মদন মিত্র বলেন, “বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন রয়েছে। এর পরবর্তী সময়ে ওদের রাজনৈতিকভাবে অপমৃত্যু ঘটবে। তখন তর্পণ করার কেউ থাকবে না। তাই আজ আমি তা করে গেলাম। বিজেপি যেভাবে একের পর এক হিংসা করে চলেছে, তা থেকে মুক্তি চাই।”

যদিও তৃণমূল নেতার এহেন কর্মকাণ্ডের কড়া নিন্দা জানিয়েছে বিজেপি। এদিন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা বলেন, “রাজনৈতিক জীবনে সায়াহ্নে এসে পৌঁছেছেন মদন মিত্র। অন্যের চোখে ভালো হওয়ার জন্য কাউকে অপমান করা কখনোই উচিত নয়। এহেন কর্মকাণ্ডের কড়া নিন্দা জানাই।” অপরদিকে, বিজেপি মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেন, “মদনদার লড়াই এখন আমাদের দলের বিরুদ্ধে নয়। উনি নিজের দলের বিরুদ্ধেই আক্রমণ করে চলেছেন।”

Related Articles