জোর ধাক্কা! অরূপের ভাই স্বরূপকে নোটিশ দিল আয়কর দপ্তর, কী এমন পাওয়া গেল তল্লাশিতে?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ টানা তিন দিনের তল্লাশির রেশ কাটতে না কাটতেই জোর ধাক্কা! গত বুধবার রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের ভাই স্বরূপের (Swarup Biswas) ফ্ল্যাটে হানা দেন আয়কর দফতরের আধিকারিকরা। প্রায় ৭০ ঘণ্টা ধরে চিরুনি তল্লাশি চালানোর পর শনিবার সকালে সেখান থেকে বেরোন তাঁরা। এরপরেই সামনে এল বড় খবর। জানা যাচ্ছে, স্বরূপকে আয়কর বিভাগের তরফ থেকে নোটিশ (Income Tax Notice) পাঠানো হয়েছে।

নোটিশ পাওয়ার কথা স্বরূপ নিজে জানিয়েছেন। আগামী এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে তাঁকে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। নির্বাচনের প্রাক্কালে স্বরূপের বাড়িতে আয়কর তল্লাশি নিয়ে তৃণমূল (TMC) শিবির খানিক উদ্বেগে ছিল বলে খবর। শনিবার শেষ হয় সেই তল্লাশি। তবে এবার জানা গেল নোটিশ পাঠানোর কথা।

   

বুধবার কাকভোরে কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে স্বরূপের নিউ আলিপুরের সাহাপুর কলোনির ফ্ল্যাটে উপস্থিত হয়েছিলেন আয়কর দফতরের কর্তারা (Income Tax Raid)। দেখতে দেখতে কেটে যায় তিনদিন। অবশেষে শনিবার ভোড় ৪:৪৫ নাগাদ ব্রিফকেস হাতে সেখান থেকে বেরিয়ে যান তাঁরা । স্বরূপ জানিয়েছেন, তাঁর বাড়ি থেকে নগদ, গয়না কিংবা নথিপত্র কিছুই বাজেয়াপ্ত করেননি IT কর্তারা। তাঁরা যে ব্রিফকেস নিয়ে এসেছিলেন সেটা নিয়েই আজ সকালে বেরিয়ে যান।

আরও পড়ুনঃ জীবনকৃষ্ণকেও গোল! টানা ৩ দিন তল্লাশির পর ‘নয়া রেকর্ড’ গড়লেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের ভাই স্বরূপ

‘রাজনৈতিক প্রতিহিংসা’র কারণে তাঁর ফ্ল্যাটে আয়কর হানা হয়েছে বলে দাবি করেন অরূপ-সহোদর। তবে খবর মিলেছে, রিয়েল এস্টেট সংক্রান্ত কয়েকটি সংস্থার অর্থনৈতিক অনিয়ম সম্বন্ধিত বিষয়েই স্বরূপের ফ্ল্যাটে হানা দিয়েছিলেন IT আধিকারিকরা। টাকা ৭০ ঘণ্টার চিরুনি তল্লাশির পর এবার মন্ত্রীর ভাইকে নোটিশ পাঠালেন তাঁরা।

swarup biswas received income tax notice after it raid

প্রসঙ্গত, অতীতেও রাজ্যের একাধিক নেতা-মন্ত্রীর বাড়িতে কেন্দ্রীয় এজেন্সি হানা দিয়েছে। তবে টানা তিনদিন ধরে তল্লাশির নজির নেই বললেই চলে। এর আগে মুর্শিদাবাদের বড়ঞার তৃণমূল বিধায়ক জীবনকৃষ্ণ সাহার বাড়িতে টানা ৬৫ ঘণ্টা তল্লাশি চালিয়েছিল ইডি। এবার ‘নাটকীয়তা’য় মোড়া সেই তল্লাশির ‘রেকর্ড’ ভেঙে দিলেন অরূপের ভাই। টানা ৭১ ঘণ্টার আয়কর তল্লাশির পর ‘দীর্ঘতম তল্লাশি’র রেকর্ড গড়ে ফেললেন স্বরূপ!

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর