‘এবার এগিয়ে যাওয়ার সময়’…বাবুলের পোস্ট ঘিরে চর্চা তুঙ্গে, উঠে এল ইন্দ্রনীলের নামও

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : পর্যটন দফতর হাত বদলের পর এবার প্রকাশ্যে উঠে এল দুই মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo) ও ইন্দ্রনীল সেনের (Indranil Sen) অন্তর্দ্বন্দের কথা। কিন্তু, শেষমেশ দীর্ঘ টানাপোড়েনের পর ফেসবুক পোস্ট করেই বাবুল সুপ্রিয় যেন নিজেদের মনোমালিন্যে দাঁড়ি টানলেন। শুধু তাই নয়, রাজ্যের উন্নয়নে দুই মন্ত্রীই যে কাজ করতে চান সেটাও একবার প্রমাণ হয়ে গেল।

এ দিন সোশাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ফেসবুকে দীর্ঘ পোস্ট করেন বাবুল সুপ্রিয়। সেই পোস্টেই তিনি লিখেছেন, “মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশমতো আমি এবং ইন্দ্রনীলদা নিজের নিজের দফতরের দায়িত্ব নিয়ে অবশ্যই নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করছি । পাবলিক লাইফে থাকলে অবশ্যই কন্ট্রোভার্সির প্রেশার থাকবে । লেজেন্ডারি টেনিস প্লেয়ার বিলি জিন কিং বলেছেন, প্রেশার ইজ এ প্রিভিলেজ ।”

আরোও পড়ুন : শহরবাসীকে পুজোর উপহার, শীঘ্রই সুখবর দিতে চলেছে কলকাতা মেট্রো! কমবে যাত্রীদের দুর্ভোগ

পাশাপাশি তিনি আরোও লেখেন, “তথ্য ও প্রযুক্তি এবং নতুন অচিরাচরিত শক্তি – আমার এই দুটি দফতর নিয়ে আমি খুশি। নতুন দায়িত্ব পাওয়া দফতরের সঙ্গে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসেবে সামলানো পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রকের সিলেবাসের অনেক মিল রয়েছে। আমাদের রাজ্যের নয়া পর্যটনমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানাই।” একই সঙ্গে, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ যে তিনি মেনে নিয়েছেন তাও স্পষ্ট হয়ে গেল।

 13092023121025 1309f 1694587225 484

প্রসঙ্গত, মন্ত্রীত্ব বদলের ইঙ্গিত প্রকাশ্যে আসতেই প্রকাশ্যে আসে বাবুল-ইন্দ্রনীলের বাকযুদ্ধ। বাবুল বলেন, ‘যে টেবিলে বসলে সম্মান থাকে না। সে টেবিল ছেড়ে আমি চলে যাই।’ একে কটাক্ষ করে বলেন ইন্দ্রনীল সেন বলেন,’ও বাচ্চা ছেলে। সবে দলে এসেছে। আমরা চেষ্টা করব ওকে নিজের মতো রাখতে।’ বুধবার দীর্ঘ ফেসবুক পোস্ট করে সেই সংঘাতকে কার্যত শিলমোহর দিলেন বাবুল ।

 

 

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর