মেয়েরাই মেয়েদের ক্ষতি চায়! টলিউডের স্বনামধন্য নায়িকার কুকীর্তি ফাঁস করলেন অপরাজিতা আঢ্য

বাংলা হান্ট ডেস্ক : বর্তমানে যদি কেউ বাংলা ইন্ডাস্ট্রি রাজ করছেন তাহলে তিনি হলেন অপরাজিতা আঢ্য (Aparajita Auddy)। ছোটপর্দা থেকে বড়পর্দা__সব জায়গাতেই তার দাপট দেখার মত। কিছুদিন বড়পর্দা কাঁপানোর পর অপরাজিতা আবার ফিরেছেন ছোটপর্দার দুনিয়ায়। দীর্ঘ ২৫ বছরের কেরিয়ারে জমিয়ে ফেলেছেন অভিজ্ঞতার ভান্ডার। সম্প্রতি এরকমই একটা অভিজ্ঞতার কথা ভাগ করে নিলেন নেটিজনদের সাথে।

   

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, অপরাজিতাকে এখন দেখা যাচ্ছে স্টার জলসার নতুন সিরিয়াল ‘জল থই থই ভালোবাসা’ সিরিয়ালে। ইতিমধ্যেই সম্প্রচারিত হতে শুরুও করে দিয়েছে। আজকের দিনে দাঁড়িয়ে টেলিভিশনের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত অভিনেত্রীর প্রোগ্রাম যে মানুষের নজর কাড়বেই সেকথা বলাই বাহুল্য। তবে আজ থেকে ১২ বছর আগে তার এই সুনাম ছিলনা।

জানা যায় অপরাজিতা যখন নবাগতা ছিলেন তখন তার সিনিয়র গার্গী রায় চৌধুরী (Gargi Roychowdhury) -র থেকে খুবই দুর্ব্যবহার পেয়েছিলেন। এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানান, আজ থেকে প্রায় ১২ বছর আগে একটি স্টুডিওতে একসাথে কাজ করছিলেন তারা। সেই সময় পিরিয়ডসের সময় তাকে বাথরুম নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়‌। অন্যদিকে গার্গীর মেকআপ রুমে আলাদা টয়লেটের ব্যবস্থা রয়েছে।

আরও পড়ুন : ‘একটু প্রার্থনা কর’, ICU-তে ভর্তি প্রিয়জন! রুবেল সুস্থ হতেই শ্বেতার বাড়িতে নয়া দূর্ঘটনা

অভিনেত্রীর কথায়, স্টুডিওর পাবলিক টয়লেট ছিল খুবই নোংরা। যে কারণে তিনি ইউনিটের কাছে অনুরোধ করেছিলেন যাতে পিরিয়ডসের দিনগুলো অন্তত তাকে গার্গীর বাথরুম ব্যবহার করতে দেওয়া হয়। তিনি নিজেও গার্গীর কাছে আর্জি জানান। তবে ঐদিন গার্গী নাকি কোনও সহমর্মিতা দেখাননি। এমনকি অপরাজিতাকে বিন্দুমাত্র সাহায্যও করেননি তিনি।

আরও পড়ুন : হরর থেকে থ্রিলার, গায়ে কাঁটা দেওয়া এই ৫ কোরিয়ান ওয়েব সিরিজ দেখলে ভুলে যাবেন নাওয়া খাওয়া

aparajita adhya on serial trp issue lokkhi kakima superstar actress sixteen nine

একজন মেয়ে হয়ে অপর এক মেয়ের অসুবিধার সময় সাহায্যের হাত না বাড়িয়ে দেওয়াটা অবাক করার বিষয় বটে বৈকি। এই কারণেই তো অপরাজিতা বলেন, “একটা মেয়ে হিসাবে কিছু সময়ে হেলপ করা উচিত, সেটা আমি যত বড় হিরোইন হই না কেন, যাই হই না কেন।” যদিও এই একই জিনিস অপরাজিতা নিজে কখনও করেননি‌। বরং এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়েছেন এবং জুনিয়রদের সুবিধা অসুবিধা বোঝার চেষ্টা করেন তিনি।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর