শুভেন্দুর বাবাকে প্রণামের জের! শোকজের পর কাঁথি পুরসভার পুরপ্রধানকে ইস্তফার নির্দেশ তৃণমূলের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ শিশির অধিকারী শুধুই যে কাঁথির সাংসদ তেমনটা নয়, তার আরেক পরিচয় তিনি বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) বাবা। সেই শিশির অধিকারীকে (Sisir Adhikari) প্রণামের মাশুল এবার টের পেতে হচ্ছে কাঁথি পুরসভার পুরপ্রধান সুবল কুমার মান্নাকে (Contai Chairman Subal Manna)। শোকজের পর এবার ওপর মহল থেকে এল ইস্তফার নির্দেশ।

   

সম্প্রতি কাঁথির একটি স্কুলের অনুষ্ঠানে গিয়ে শিশির অধিকারীকে ‘গুরুদেব’ বলে সম্বোধন করেন কাঁথি পুরসভার পুরপ্রধান সুবল কুমার মান্না। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কাঁথি ১ ব্লকের সাবাজপুট এলাকায় ওই স্কুলের অনুষ্ঠানে পাশাপাশি বসার আসন দেওয়া হয় শিশির ও সুবলবাবুকে। এরপর অনুষ্ঠানে প্রদীপ জ্বালানোর সময় শিশিরবাবু পুরপ্রধানকে তার কাছে ডেকে নেন।

ওদিকে শিশিরবাবু বক্তব্য শেষে পুরপ্রধান তাকে পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করেন। সাথে ‘গুরু’ আখ্যাও দেন। শুধু তাই নয়, তিনি বলেন, ‘বাবা-মা জন্ম দিয়েছেন ঠিকই। পথ চলা, আজ যে এই জায়গায় পৌঁছেছি,পূজ্যপদ গুরুদেব এখানে আছেন। তাকে আমার প্রণাম। মাননীয় শিশির অধিকারী মহাশয়কে।’ আর কি! এরপরই শাস্তির পাহাড় নেমে এল পুরপ্রধানের মাথায়।

আরও পড়ুন: নতুন বছরেই বাম্পার উপহার! ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বিরাট ব্যবস্থা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের, মিলবে এই সুবিধাগুলি

তড়িঘড়ি কাঁথি সাংগঠনিক জেলার তরফে সাংবাদিক বৈঠক করে সুবলবাবুকে শোকজ করার কথা জানানো হয়। তবে এখানেই শেষ নয়। প্রবীণ তৃণমূল সাংসদকে প্রণাম কাণ্ডে সুবল মান্নাকে এবার কাঁথি পুরসভার পুরপ্রধান পদ থেকে ইস্তফা দিতে বলা হল।

shishir tmc

এই বিষয়ে তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ বলেন, “কাঁথি পুরসভার চেয়ারম্যান যেভাবে শিশির অধিকারীকে প্রণাম করে গুরু বলেছেন, তা দলের শীর্ষ নেতৃত্ব ভালোভাবে নেয়নি। ওকে ইস্তফা দিতে বলা হয়েছে।” এই বিষয়ে এখনও কাঁথি পুরসভার পুরপ্রধানের প্রতিক্রিয়া মেলে নি।