বিনিয়োগ করুন মোদি সরকারের এই স্কিমগুলোয়! পাবেন বিরাট আয়কর ছাড়, সাথে মোটা টাকা রিটার্ন

বাংলাহান্ট ডেস্ক : আর মাত্র কিছু দিন সময় রয়েছে ২০২৩-২৪ অর্থবর্ষের জন্য ট্যাক্স সেভিং স্কিমে বিনিয়োগ করার জন্য। এই বিনিয়োগ করে ফেলতে হবে আগামী ৩১ মার্চের মধ্যে। আর্থিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড বা পিপিএফে বিনিয়োগ একদিকে যেমন লাভদায়ক, অন্যদিকে আয়কর বাঁচাতে সক্ষম।

   

বর্তমানে বার্ষিক ৭.১ শতাংশ  হারে সুদ দেওয়া হচ্ছে পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ডে। এমনকি পিপিএফ-এর বিপরীতে গ্রাহক ঋণের সুবিধাও পেয়ে থাকেন।কেন্দ্রীয় সরকার সমর্থিত সেভিংস স্কিম হল PPF। এই স্কিমে সুদের হার নির্ধারণ করে সরকার। তাই এই স্কিমে টাকা বিনিয়োগ অত্যন্ত সুরক্ষিত। ট্যাক্স বেনিফিট এবং মোটা রিটার্নের সঞ্চয় বিকল্প যারা খুঁজছেন তাদের জন্য আদর্শ এই পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড।

আরোও পড়ুন : সাবধান! এই সামান্য ভুলে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বহুজনের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট! আপনারটা সুরক্ষিত রয়েছে তো?

সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা এবং সিনিয়র সিটিজেন স্কিমেই ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পগুলির মধ্যে সবথেকে বেশি সুদ প্রদান করে। তবে এখানে সাধারণ জনতা বিনিয়োগ করতে পারেন। এই দুটি স্কিমে নির্দিষ্ট নাগরিকরা  বিনিয়োগ করতে সক্ষম। EEE ক্যাটাগরির মধ্যে পড়ে পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ডে বিনিয়োগ। অর্থাৎ এখানে বিনিয়োগ করলে পাওয়া যায় কর ছাড়ের সুবিধা।

government will give good news for the customers of small savings scheme

পাশাপাশি যে সুদ গ্রাহক লাভ করেন সেখানেও কর দিতে হয় না। সাধারণত ১৫ বছর মেয়াদ হয়ে থাকে পিপিএফ-এর। যদি আচমকা অর্থের প্রয়োজন না হয় তাহলে বিনিয়োগকারী মেয়াদ শেষে ফান্ডের মেয়াদ বৃদ্ধি করতে পারেন। তবে একটা কথা অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে, যে কোন টাকা বিনিয়োগ করার আগেই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিন।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর