অর্থের অভাবে ধুঁকছে মালদহ বিমানবন্দর! এয়ারপোর্টের সেই পরিত্যক্ত ছবি দেখলে শিউরে উঠবেন আপনিও

বাংলাহান্ট ডেস্ক : রাজ্য সরকারের উদ্যোগে বছর ছয়েক আগে মালদহ বিমানবন্দরের পরিকাঠামো উন্নয়নের কাজ শুরু হয়। কয়েক কোটি টাকা খরচ করে তৈরি করা হয় রানওয়ে। তবে সেই রানওয়ে এখন ব্যবহার হচ্ছে  ‘ক্রিকেট পিচ’ বা গাড়ি চালানোর প্রশিক্ষণের রাস্তা হিসাবে। টাকার অভাবে সম্পূর্ণ করা যাচ্ছে না বিমানবন্দরের কাজ।

   

তাই মালদহ বিমানবন্দর তৈরির স্বপ্ন এখন বন্দী শুধুই কল্পনায়। বিমানবন্দরের জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে জমি খোঁজার কাজ শুরু হয়। প্রশাসন দাবি করছে বিমানবন্দরের জমির চারপাশে রয়েছে বহু বহুতল ও হোটেল। এছাড়াও বৈদ্যুতিকরণ এর কাজ চলছে বিমানবন্দরের জমি লাগোয়া রেললাইনে। আরো বেশি রানওয়ে প্রয়োজন বড় উড়ানের জন্য।

আরোও পড়ুন : মোদীকে অপমান! জবাব দিতে সচিন, অক্ষয়রা নামলেন লাক্ষাদ্বীপের প্রচারে, এবার ভাতে মরবে মালদ্বীপ

ভাবনা চিন্তা চলছে বিমানবন্দর গাজলে স্থানান্তরিত করার জন্য। যদিও আধিকারিকরা দাবি করছেন এখনই জমি চিহ্নিত করে কাজ শুরু করা সম্ভব নয়। আধিকারিকরা দাবি করেছেন, বিমানবন্দরের হাল ফেরানোর উদ্যোগ নেওয়া হয় ২০১৭ সালে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে। পরিকাঠামো উন্নয়নের জন্য বরাদ্দ করা হয় ১৭ কোটি ২০ লক্ষ টাকা। 

আরোও পড়ুন : রামলালার প্রাণপ্রতিষ্ঠা দেখা যাবে নিউ ইয়র্কেও! অযোধ্যার রামমন্দিরের উদ্বোধনে সৃষ্টি হবে এক ইতিহাস

এরপর নির্মাণ করা হয়েছে ১৪৫০ মিটার লম্বা এবং ৩৩ মিটার চওড়া রানওয়েও। এয়ারপোর্ট ইন্ডিয়া অথরিটির দাবি ১৮ আসনের উড়ান চলাচলের সম্ভাবনা রয়েছে এই রানওয়েতে। পার্কিং জ়োন, যাত্রী প্রতীক্ষালয়, শৌচাগার, অফিস ঘর, দমকল কেন্দ্রের মতো নুন্যতম পরিকাঠামো যদিও এখনো তৈরি করা সম্ভব হয়নি।

malda airport no maintenance people demand to start service abk nine

প্রশাসন সূত্রে খবর এই কাজের জন্য প্রয়োজন আরও ১০ কোটি টাকার। কোটি কোটি  টাকা ব্যয় করে রানওয়ে তৈরি হলেও, পর্যাপ্ত পরিকাঠামোর জন্য শুরু করা যাচ্ছে না বিমান চলাচল। স্থানীয়দের অভিযোগ, বিমানবন্দরের জায়গায় ক্রিকেট খেলা হচ্ছে। এমনকি এখানে মোটর বাইক, গাড়ি চালানো শেখা, পরিবহণ দফতরের গাড়ির পরীক্ষাও হচ্ছে।