বাংলা এখন স্বর্গরাজ্য! হকার ঋণদানে সবার সেরা পশ্চিমবঙ্গ, বড় সাফল্য সরকারের

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : মঙ্গলবার থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে বিশ্ববাংলা বাণিজ্য সম্মেলন। ব্যবসা বাণিজ্যে বাংলা কীভাবে উন্নতি করবে তা নিয়ে চলছে বিস্তর জল্পনা কল্পনা। তবে কেউ খোঁজ নিয়েছেন কি যে, বাংলার ছোট ব্যবসায়ী এবং হকাররা কেমন আছেন? রাজার সরকারের তরফ থেকে কী করা হয়েছে ছোট ব্যবসায়ী এবং হকারদের জন্য? প্রশ্ন উঠতেই সামনে এল সেই তথ্য।

mcms

বড় সাফল্য রাজ্য সরকারের

সূত্রের খবর, চলত বছর পুজোর মরশুমে কমকরে হলেও প্রায় দেড় লক্ষ হকারকে ঋণ দিয়েছে রাজ্য সরকার (State Government)। বলা হচ্ছে হকার (Hawker) এবং ছোট ব্যবসায়ীদের পাশে থাকায় এক নম্বরে রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। এই প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন মেয়র ফিরহাদ হাকিমও। তিনি বেশ জোর গলাতেই জানিয়েছেন যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভালো কাজের কথা মেনে নিয়েছে কেন্দ্রও‌।

ফিরহাদ হাকিম যা বললেন?

মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের কথায়, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার যে ভালো কাজ করছে তা আরও একবার প্রমাণ হল। প্রশাসনিক কাজে, মানুষকে পরিষেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে আমরা যে ভালো কাজ করছি তা মেনে নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তারা এনিয়ে স্বীকৃতি দিয়েছে।’ পাশাপাশি এইদিন কেন্দ্রীয় বঞ্চনার প্রসঙ্গও মুখর হয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন : পকেটমারদের স্যালারি ৮০ হাজার, মাস গেলে মেলে ইনসেনটিভ! মাথায় হাত মালদা পুলিশের

সেরার তালিকায় রাজ্য সরকার

মন্ত্রী বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকার এত ক্ষেত্রে বঞ্চনা করছে। তারপরেও বাংলা একাধিক ক্ষেত্রে দেশের সেরা। একশ দিনের কাজের প্রকল্পেও আমরা সেরা হয়েছি। কিন্তু তারপরই ওরা টাকা বন্ধ করে দিয়েছে।’ এখানেই থেমে থাকেননি তিনি। কটাক্ষের সুরে বলে ওঠেন, ‘এবার সেরা হওয়ার ‘অপরাধে’ হকারদের টাকা না বন্ধ করে দেয়। আমরা আর পজিটিভ পুরস্কার চাই না এজন্য।’

আরও পড়ুন : উত্তরাকাশীর সুড়ঙ্গে ১০ দিন, কেমন রয়েছে ৪১ জন শ্রমিক? প্রকাশ্যে প্রথম ভিডিও

lspic3 1665080848787

হকারদের জন্য সহজ শর্তে ঋণ

হালফিলের সময়ে হকারদের পাশে থাকার সবরকম চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার। অতীতে বহুবার দেখা গেছে, রাস্তা থেকে উচ্ছেদ করা হয়েছে হকারদের। কিছু কিছু ক্ষেত্রে পুনর্বাসন দেওয়া হয়েছে যদিও। তবে এবার হকাররা যাতে সহজে ঋণ পায় সেই বিষয়টাও খেয়াল রাখছে সরকার। আর এবার ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে বড় সাফল্য এল রাজ্য সরকারের হাতে। হকারদের ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে সবার আগে এগিয়ে রয়েছে রাজ্য।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর