এ যেন সায়গল টু! বান্ধবীকে ১২ লাখের গাড়ি, কোটি-কোটির সম্পত্তি, গ্রেফতার বীরভূমের কনস্টেবল

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বীরভূম (Birbhum) বললেই মনে পড়ে অনুব্রত মণ্ডলের কথা। গরু পাচার মামলায় দীর্ঘদিন জেলবন্দি কেষ্ট। সম্প্রতি তার বাজেয়াপ্ত করা কোটি কোটি টাকার সম্পত্তির হিসাব আদালতে দিয়েছেন তদন্তকারীরা। আর এবার ফের এই বীরভূম থেকেই খোঁজ মিলল কোটিপতি কনস্টেবলের (Constable)।

কনস্টেবলের চাকরি করে কী পরিমাণ বেতন পাওয়া যায় সেই ধারণা মোটামুটি সকলেরই রয়েছে। তবে এই কনস্টেবলের সম্পত্তির খতিয়ান দেখে ভিরমি খাচ্ছেন খোদ পুলিশকর্মীরাই। রামপুরহাট থানায় কর্মরত কনস্টেবল মনোজিৎ বাগীশের সম্পত্তির পরিমাণ জানলে চোখ কপালে উঠবে আপনারও।

ইতিমধ্যেই আয় বর্হিভূত সম্পত্তির (Huge Asset’s) অভিযোগে কনস্টেবল বাগীশেকে গ্রেফতার (Arrest) করেছে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ। গতকাল রাজ্য পুলিশের দুর্নীতি দমন শাখার তদন্তকারীরা বীরভূমে এসে গ্রেফতার করে তাকে। পুলিশের হাতে খোদ পুলিশের গ্রেফতারির ঘটনায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে গোটা এলাকায়।

আরও পড়ুন: ঘোর বিপাকে পার্থের অর্পিতা! এবার আরেক দুর্নীতিতেও উঠে এল নাম, ফাঁস করল ED

সূত্রের খবর, মনোজিৎ নিজের বান্ধবীকে ১১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা দামের গাড়ি উপহার হিসেবে দিয়েছেন। প্রায় ১০ লাখ টাকার জীবন বিমান রয়েছে তার। রয়েছে ১২টি ফিক্সড ডিপোজিট। সবমিলিয়ে যার মূল্য প্রায় ৭৬ লাখ টাকা। বারুইপুরে নিজের জন্মস্থানে রয়েছে পেল্লায় বাড়ি। এছাড়াও সামান্য কনস্টেবলের চাকরি করা মনোজিতের নামে একাধিক জমি, বাড়ি ও ফ্ল্যাট থাকতে পারে বলে অনুমান পুলিশের।

arrest

আরও পড়ুন: বিশ্বকর্মা পুজোতে কেমন থাকবে দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া? মন খারাপ করা খবর দিল হাওয়া অফিস

স্থানীয় সূত্রে দাবি, ২০১২ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে আচমকাই মনোজিতের সম্পত্তি বিপুল পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। এই সম্পত্তি, টাকার মূল উৎস কী তাই খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। আদালত ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অভিযুক্তকে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে। ওদিকে এই কনস্টেবলের গ্রেফতারির পরই উঠে আসছে অনুব্রতের প্রাক্তন দেহরক্ষী সায়গল হোসেনের কথা।

মনোজিতের মতোই সামান্য কনস্টেবল থেকে তার কোটি কোটির সম্পত্তির খোঁজ মেলার ঘটনা শোরগোল ফেলেছিল গোটা রাজ্যে। বর্তমানে গরু পাচার মামলায় অনুব্রত- সুকন্যার পাশাপাশি তিহাড়েই বন্দি রয়েছে সায়গল।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর