টাইমলাইনভারতখেলাআন্তর্জাতিকক্রিকেট

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে জয়ের নিরিখে সবচেয়ে সফল দল কারা, কোন স্থানে ভারত রইল বিস্তারিত পরিসংখ্যান

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ অপেক্ষা আর মাত্র তিনদিনের, আরব আমিরশাহীতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের লড়াইয়ে নামতে চলেছে ক্রিকেটের নামী বড় দলগুলি। যদিও ভারত সফর শুরু করবে ২৪ অক্টোবর কিন্তু ২৩ অক্টোবর থেকে শুরু হতে চলেছে বিশ্বকাপের মুখ্য পর্বের লড়াই। বিশ্বকাপের এই লড়াইয়ে ভারত, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ইংল্যান্ডের মতো দলগুলিকে এখন থেকেই বড় দাবিদার বলে মনে করা হচ্ছে ঠিকই তবে পরিসংখ্যানের হিসাব দেখতে গেলে বিশ্বকাপে সব থেকে বেশি জয় কিন্তু এই দলগুলির কারোরই নেই।

বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত সবথেকে বেশি ম্যাচ জিতেছে শ্রীলংকা। যদিও এবার তারা সরাসরি কোয়ালিফাই করার সুযোগ পায়নি, তাদের যেতে হচ্ছে বাছাই পর্বের মধ্য দিয়ে। তবে পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে এখনও পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মোট ৩৫ টি ম্যাচ খেলেছে শ্রীলংকা। যার মধ্যে ২২ টি ম্যাচেই জয় পেয়েছে তারা, পরাজিত হয়েছে মাত্র ১২ টিতে। তাদের জয়ের হার ৬৪.২৮ শতাংশ। এই তালিকায় অবশ্য এর পরেই অবস্থান করছে ভারতীয় দল। এখনও পর্যন্ত সমস্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপই ধোনির নেতৃত্বে খেলেছে ভারত। ৩৩ টি ম্যাচের মধ্যে মোট ২০ টি জয় পেয়েছে টিম ইন্ডিয়া, হার মাত্র ১১ টি। জয়ের হার ৬৪.০৬ শতাংশ।

তালিকায় তৃতীয় এবং চতুর্থ স্থানে রয়েছে পাকিস্তান এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। একদিকে যেমন পাকিস্তানের ঝুলিতে রয়েছে ৩৪টি ম্যাচে ১৯ টি জয় এবং ১৪ টি হার (৫৭.২৯%), অন্যদিকে তেমনি দক্ষিণ আফ্রিকার ঝুলিতে ৩০ ম্যাচে রয়েছে ১৮টি জয় এবং ১২টি হার(৬০.০০%)। তালিকার পঞ্চম স্থানে রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ৩১ ম্যাচে ১৭ টি জয় এবং ১২ টি হার স্বীকার করতে হয়েছে তাদের (৫৮.৩৩%)। অন্যদিকে রানের ভিত্তিতে সবচেয়ে বড় জয়ের দিকে তাকালেও প্রথম স্থানে রয়েছে শ্রীলংকাই। ২০০৭ সালে ২৬০-৬ রান তুলে কেনিয়াকে ১৭২ রানে হারিয়েছিল তারা। এক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ২০০৯ সালে প্রথম ব্যাট করে তারা সংগ্রহ করেছিল ২১১-২ রান। সেবার স্কটল্যান্ডকে তারা হারায় ১৩০ রানে।

এই তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইংল্যান্ড। ২০১২ সালে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে পাঁচ উইকেটের বিনিময়ে ১৯৬ রান সংগ্রহ করেছিল তারা। সেবার আফগানিস্তান হেরে যায় ১১৬ রানে। সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়ের ক্ষেত্রে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ভারত। ২০১২ সালেই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৭০ রান সংগ্রহ করেছিল তারা। কিন্তু তাও সেবার ইংল্যান্ডকে ৯০ রানে পরাজিত করে ভারত। এই তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২০১৪ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৬ রান সংগ্রহ করলেও সেবার ৮৪ রানে পাকিস্তানকে হারায় তারা। অন্যদিকে যদি সব থেকে কম রানের ব্যবধানে জয়ের দিকে লক্ষ্য দিতে হয়, তাহলে এই তালিকায় দুবার রয়েছে ভারতের নাম। মাত্র ১ রানের ব্যবধানে দক্ষিণ আফ্রিকা(২০১২) এবং বাংলাদেশকে (২০১৬) হারিয়েছিল ভারত। এছাড়া ২০১০ সালে নিউজিল্যান্ডও পাকিস্তানকে হারায় এক রানে।

 

Related Articles