fbpx
টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

দল মধ্যস্থ দুর্নীতিতে জড়িয়ে কারা? খুঁজছে এবার পিকের টিম, জাঁতাকলে তৃণমূল

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ কেঁচো খুঁড়তে না গিয়ে এবার কেউটে বেরিয়ে পড়ে। কোচবিহারে (Cooch Behar) তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) দুর্নীতি গ্রস্থদের নামের তালিকা বানাচ্ছে দল এবং পিকের টিম। অল্প সময়ে কে বেশি সম্পত্তির মালিক হলেন? এই শাসনকালে আচরণ বদলেছেই বা কার? কারই বা আয়ের থেকে সম্পত্তির পরিমাণ বেশি? তালিকা ভুক্ত হচ্ছে এখন সেইসব নাম।

সেই সঙ্গে স্পষ্ট ভাবে জানানো হল, দলে যাদের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি নিয়ে সংশয় রয়েছে, তাঁদেরকে সংরক্ষিত পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে। এমনকি দলীয় কোন নেতার নামে দুর্নীতির অভিযোগ উঠলে, তাঁর পাশে দলের কোন সদস্য দাঁড়াবে না বলেও সাফ জানিয়ে দেওয়া হল। এই বিষয়ে এখনও কোন মন্তব্য করেননি দলীয় কোন সদস্যই।

দুর্নীতি গ্রস্থদের নামের তালিকা বানাচ্ছে পিকের টিম
পিকের টিমের এই কাজের ভবিষ্যৎ কি হবে তা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে দলের অন্তরেই। কারণ, কোচবিহারে এমন অনেক নেতা রয়েছেন, যারা পূর্বেই দুর্নীতির তালিকায় তাঁদের নাম তুলে রেখেছেন। ১০০ দিনের কাজের অর্থ নিয়ে দুর্নীতির পাশাপাশি তারা বিভিন্ন মামলার সাথেও যুক্ত রয়েছেন। এমনকি অনেক নেতারা গত লোকসভায় হারের পর কাটমানি কান্ডেও যুক্ত হয়ে পড়েছেন। তাঁর কেউ কেউ অর্থ না ফিরিয়ে দিলেও, কেউ কেউ আবার তা ফিরিয়েও দিয়েছেন।

দুর্নীতি কান্ডে যুক্ত অধিকাংশই
বিরোধী পক্ষেরও একাধিক অভিযোগের মুখোমুখি হয়ে আছেন কোচবিহাররে অনেক শীর্ষ স্থানীয় নেতারা। অস্ত্র সহ গ্রেপ্তারের মামলা ছাড়াও ধর্ষণ কান্ডেও জড়িত আছেন অনেকে। সবকিছু মিলিয়ে বহু নেতার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ থাকলেও, বিরোধী পক্ষের উক্তির দিকে খুব একটা আমল দিতে চাইছেন না শাসক দল। ভরসা রাখছেন পিকের টিমের তালিকায়। খতিয়ে দেখা হবে এই তৃণমূলের সময়কালের সমস্ত তথ্য। পাশাপাশি জনপ্রতিনিধির বিষয়ে কি বলছেন এলাকাবাসী, তাও নথিভুক্ত করা হবে।

দুর্নীতি যুক্তদের তৃণমূলে কোন জায়গা নেই
এই বিষয়ে বিজেপির কোচবিহার জেলা সভানেত্রী মালতী রাভা জানান, “ঠগ বাছতে দেখা যাবে গাঁ উজাড় হয়ে যাচ্ছে। সবাই তো দেখছি দুর্নীতিতে অভিযুক্ত।” দুর্নীতি গ্রস্থদের নামের তালিকা প্রস্তুতে তৃণমূলের কোচবিহার জেলা সভাপতি বিনয়কৃষ্ণ বর্মণ বলছেন, তবে এটুকুই শুধু বলব, দুর্নীতি যুক্তদের তৃণমূলে কোন জায়গা নেই।

Back to top button
Close
Close