কলকাতায় নিষিদ্ধ ২৫০০ বাস! এই দিন থেকে আর মিলবে না পরিষেবা, বড় রায় হাইকোর্টের

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : কলকাতা হাইকোর্টের পক্ষ থেকে ২০০৯ সালে নির্দেশ দেওয়া হয় শহরে ১৫ বছরের বেশি পুরনো বাস চালানো যাবেনা। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী আগামী বছর অর্থাৎ ২০২৪ সালে শহরের বহু বাসের বয়স ১৫ বছর পার করবে। জানা যাচ্ছে ১৫ বছরের বেশি পুরাতন বাসের সংখ্যা দাঁড়াবে প্রায় আড়াই হাজার।

অর্থাৎ কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী এই আড়াই হাজার বাস আগামী বছর থেকে আর চলবেনা শহরের রাস্তায়। হিসাব অনুযায়ী বর্তমানে শহরে যে সংখ্যক বাস চলে এই সংখ্যাটা তার প্রায় অর্ধেক। বেসরকারি বাস মালিকরা মনে করছেন এত পরিমাণ বাস যদি বসে যায় তাহলে চরম দুর্ভোগের সম্মুখীন হবেন যাত্রীরা।

আরোও পড়ুন: জ্ঞানবাপীর পর এবার সার্ভে করা যাবে মথুরার শাহী ঈদগাহতেও! আর্জিতে সায় দিল হাইকোর্ট

পরিবহণ ও বাস মালিকদের সংগঠন সূত্রে খবর, ২০২৪ সালের ৩১ শে জুলাই এর মধ্যে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ মেনে বসিয়ে দেওয়া হবে প্রায় আড়াই হাজার বাস। কলকাতায় বর্তমানে প্রায় পাঁচ হাজার বাস চলে প্রতিদিন। ফলে যদি এত সংখ্যক বাস পরিষেবা দেওয়া বন্ধ করে দেয় তাহলে চরম যাত্রী দুর্ভোগ দেখা যাবে শহরে।

আরোও পড়ুন : তিন গুন বাড়ল বিক্রি, কলকাতায় গীতা কিনতে চরম ভিড়! আসছে বিদেশের অর্ডার, কারণ অবাক করবে

এই আবহে বেসরকারি বাস মালিকরা বলছেন, নতুন বিএস ৬ ইঞ্জিনের বাস কিনে রাস্তায় নামানো সহজ কাজ নয়। বাস মালিকদের বক্তব্য, বিএস ৬ ইঞ্জিনের বাসের দাম প্রায় ২৫ থেকে ৩০ লক্ষ টাকা। অন্যদিকে পরিবহন ব্যবসার অবস্থা খুবই খারাপ। তাই এই মুহূর্তে বাস মালিকরা এত টাকা দিয়ে বাস কিনে রাস্তায় নামাতে রাজি নন।

এই পরিস্থিতিতে বাস মালিকরা দাবি তুলেছেন তাদের আরো কিছুটা সময় দেওয়া হোক। বাস মালিকদের যুক্তি করোনা মহামারীর জন্য রাস্তায় দু’বছর বাস নামেনি। ফলে তাদের আর্থিক সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়েছে। অন্যদিকে বর্তমানে যে হারে জ্বালানির খরচ বেড়েছে, তাতে আর্থিক অবস্থা শোচনীয় হয়ে পড়েছে। তাই নতুন বাস নামানোর ক্ষেত্রে আরও দু’বছর সময় দেওয়া হোক।

kolkata bus q3 1

বিষয়টি নিয়ে রাজ্য পরিবহন দপ্তরকে ইতিমধ্যেই চিঠি দিয়েছে বাস মালিক সংগঠনগুলি। জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেটের সাধারণ সম্পাদক তপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এই বিষয়টি নিয়ে পরিবহন দপ্তরকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। ভাবা উচিত হঠাৎ করে এত পরিমান বাস রাস্তা থেকে উঠে গেলে যাত্রীদের কতটা সমস্যা হবে। অপরদিকে, পরিবহন দপ্তরের আধিকারিকরা বলছেন, হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করার কোনও উপায় নেই।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর