করে দেখাল ভারত, এবার এখান থেকে প্রতিদিন উত্তোলন করা যাবে ৪৫ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত তেল

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এবার একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ খবর সামনে এসেছে। এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, সরকারি সংস্থা অয়েল অ্যান্ড ন্যাচারাল গ্যাস কর্পোরেশন (Oil And Natural Gas Corporation, ONGC) গত রবিবার থেকে কৃষ্ণা গোদাবরী বেসিন অর্থাৎ অববাহিকায় তার ফ্ল্যাগশিপ গভীর জল প্রকল্প থেকে প্রথমবারের মতো অপরিশোধিত তেল উৎপাদন শুরু করেছে।

   

ইতিমধ্যেই পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি X মাধ্যমে বিষয়টি উপস্থাপিত করেন। পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী জানান, বঙ্গোপসাগরে কৃষ্ণা নদীর অববাহিকায় কেজি-ডিডব্লিউএন-৯৮/২ ব্লকে প্রথমবারের মতো তেল উৎপাদিত হয়েছে।

প্রতিদিন ৪৫ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত তেল উৎপাদন করা যাবে: এই প্রাঙ্গে পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী জানান, সেখান থেকে প্রতিদিন ৪৫ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত তেল উৎপাদিত হবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। তবে, এই পর্যায়ে পৌঁছতে কয়েক বছর সময় লাগতে পারে। এছাড়াও, সেখান থেকে প্রতিদিন ১০ মিলিয়ন কিউবিক মিটারের বেশি প্রাকৃতিক গ্যাসও নির্গত হতে পারে। যেটি দেশকে জ্বালানি খাতে স্বাবলম্বী হতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

আরও পড়ুন: আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে খেলবেন না সূর্যকুমার! এই কারণে বাদ পড়লেন টিম থেকে, জানলে চমকে উঠবেন

পাশাপাশি, তিনি আরও বলেন, এই প্রকল্প দেশের বর্তমান মোট তেল উৎপাদনের ৭ শতাংশ এবং প্রাকৃতিক গ্যাসের ৭ শতাংশ উৎপাদন করবে। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, এই প্রকল্প থেকে শুরুতে ৮ থেকে ৯ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত তেল উৎপাদন করা হবে এবং ৩ থেকে ৪ টি কূপ থেকে তেল উৎপাদন করা হবে। ধীরে ধীরে অন্যান্য কূপ যুক্ত করে উৎপাদন বাড়ানো হবে।

আরও পড়ুন: এবার টিভি দেখার জন্য গুণতে হবে অতিরিক্ত টাকা! এই দিন থেকেই বাড়তে চলেছে দাম, জানুন তারিখ

এদিকে, জানা গিয়েছে যে সেখান থেকে অপরিশোধিত তেল প্রথমে পাঠানো হবে ONGC-র সহযোগী প্রতিষ্ঠান ম্যাঙ্গালোর রিফাইনারি অ্যান্ড পেট্রোকেমিক্যালস লিমিটেডে। সেখানে অপরিশোধিত তেলের গুণমান পরীক্ষা করে এর গ্রেড নির্ধারণ করা হবে। জানিয়ে রাখি যে, কৃষ্ণা গোদাবরী অববাহিকার যে প্রকল্প থেকে তেল উত্তোলন করা হচ্ছে তা বঙ্গোপসাগরের ব-দ্বীপের অংশ এবং অন্ধ্রপ্রদেশের আঞ্চলিক জলসীমা থেকে ৩৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত রয়েছে। এই সম্পূর্ণ ব্লকটিকে তিনটি ক্লাস্টার্স-১, ২, ৩-এ ভাগ করা হয়েছে এবং এখন ক্লাস্টার-২-তে তেল উৎপাদন শুরু হয়েছে।