‘আমাদের মুখের ভাষা বোঝে না, তাঁরা মনের ভাষা বুঝবে’? ব্রিগেড থেকে বিজেপি বিদায়ের ডাক অভিষেকের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে ব্রিগেডে জনগর্জন সভার আয়োজন। জেলা থেকে হাজার হাজার মানুষ রবিবার পৌঁছে গিয়েছেন তৃণমূলের সভায়। এবার ব্রিগেডে দাঁড়িয়েই বিজেপি বিদায়ের সূচনার ডাক দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। বাংলা বিজেপি বিরোধী, সিবিআই -ইডি ভোট দেবে না, ভোট দেবে মানুষ বলেও সুড় চড়াতে দেখা যায় তৃণমূলের (TMC) সেকেন্ড ইন কমান্ডকে।

আজকের সভায় (Brigade Jonogorjon Sobha) বক্তব্য রাখার আগে সভামঞ্চের সঙ্গে যুক্ত র‍্যাম্প থেকে জনতার উদ্দেশে নতজানু হয়ে প্রণাম করেন অভিষেক। মুষ্টিবদ্ধ হাত তুলে লড়াইয়েরও ডাক দেন তৃণমূলের (Trinamool Congress) সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। এরপরেই বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ শুরু করেন। ব্রিগেডের সভা থেকে বিজেপির (BJP) বিদায়লগ্নের সূচনার ডাকও দেন তিনি।

অভিষেক বলেন, ‘২ সপ্তাহেরও কম ব্যবধানে এই ঐতিহাসিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বিগত দিনে ব্রিগেডে যে জনসভা হয়েছে, তৃণমূলে বাদে প্রত্যেকের ৬ মাস সময় লাগে। বিজেপির কাছে সবকিছু আছে। কিন্তু তৃণমূলের সঙ্গে মানুষ আছে। আগামীর রায়, স্বৈরাচারীদের বিদায়’। এরপরেই মোদীকে (Narendra Modi) নিশানা করেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ।

আরও পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রীর দুহাত কপালে! মোদীর সঙ্গে ‘পার্সোনাল’ কী কথা হল? জানালেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়

‘মোদী কি গ্যারান্টি’ প্রসঙ্গে টেনে অভিষেক বলেন, ‘দিল্লি থেকে বহিরাগত এসে বলছেন ‘মোদী কি গ্যারান্টি’। আগে চোর চুরি করে জেলে যেত, এখন বিজেপিতে যায়, এটা মোদীর গ্যারান্টি। ভোটে জিতলে ১৫ লাখ টাকা দেওয়ার কথা বলেছিলেন, মানুষ জানে তাঁরা কী পেয়েছেন। অন্যদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা ঘোষণা করেছেন, মানুষ সব পেয়েছেন’।

abhishek banerjee brigade jonogorjon sobha

ব্রিগেডের সভায় দাঁড়িয়ে এরপর অভিষেক প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, ‘বাংলা এবার ঠিক করুন, কোন গ্যারান্টি চায়, মোদী না দিদি? যাঁরা আমাদের মুখের ভাষা বোঝে না, তাঁরা আমাদের মনের ভাষা বুঝবে?’ দিল্লি থেকে বাংলায় এসে যারা বাংলায় রাজনৈতিক বক্তব্য রাখেন, তাঁরা বাংলা ভাষা বোঝেন না, বাংলা বলতেও পারেন না। নাম না করেই জনগর্জন সভা থেকে মোদী সহ কেন্দ্রের বিজেপি নেতাদের নিশানা করেন অভিষেক।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর