শেষমেষ কাকুই ফেলল বিপাকে! নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় হাইকোর্টে জোর ধাক্কা খেল রাজ্য

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ নিয়োগ দুর্নীতি (Recruitment Scam) মামলায় বিরাট ধাক্কা রাজ্যের। প্রাথমিকে নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় রাজ্য সরকারের হয়ে আর সওয়াল করতে পারবেন না অ্যাডভোকেট জেনারেল (West Bengal Advocate General) কিশোর দত্ত। এমনই নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের (Calcutta High Court) বিচারপতি অমৃতা সিনহা (Justice Amrita Sinha)। এই মামলায় বিচারপতির এজলাসে রাজ্যের হয়ে সওয়াল করতে পারবেন না মুখ্য আইনি উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট জেনারেল। কারণ কি?

   

বুধবার এই মামলার শুনানি চলাকালীন বিচারপতি সিনহা বলেন, ‘আমি শুনেছি যে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল এই দুর্নীতির মামলায় কোনও এক অভিযুক্তর হয়ে মামলা লড়ছেন। যদি এটা সত্যি হয় তবে সরাসরি স্বার্থের সংঘাত তৈরী হচ্ছে। ” এরপরই রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেলকে ডেকে পাঠান বিচারপতি সিনহা।

নির্দেশ মত বিচারপতি সিনহার এজলাসে উপস্থিত হন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল। তিনি জানান, তিনি এখনও নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত সুজয় কৃষ্ণ ভদ্র (Sujay Krishna Bhadra) ওরফে কালীঘাটের কাকুর আইনজীবী হিসেবে মামলা লড়ছেন। এরপরেই বিচারপতি সিনহা অ্যাডভোকেট জেনারেলকে বলেন, ‘তাহলে তো আপনি এই মামলায় রাজ্যের আইনজীবী হিসেবে লড়তে পারবেন না। কারণ বিচার শুধু করলেই হবে না, তা ন্যায় বিচার হিসেবে মানুষের কাছে দৃশ্যমান হতে হবে।’

প্রসঙ্গত, নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় গত বছর গ্রেফতার হয়েছেন সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র । গ্রেফতারির পর বহু সময় থেকেই সুজয়কৃষ্ণ ওরফে কালীঘাটের কাকুর কণ্ঠস্বর সংগ্রহের চেষ্টা চালাচ্ছিল ইডি ! তবে প্রায় চার মাস ধরে চেষ্টা করেও সফল হননি ইডি আধিকারিকরা। তবে গত সপ্তাহে বিচারপতি সিনহার কড়া নির্দেশের পর অবশেষে কাকুর কণ্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়।

kalighater kaku, justice sinha

আরও পড়ুন: অনুদান বন্ধের ভয়! নামফলকে ‘প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা’ লেখার ‘নির্দেশ’ রাজ্য সরকারের

এদিন শুনানিতে বিচারপতি আরও বলেন, “আন্দোলনকারীরা বহুদিন থেকে আন্দোলন করছে, তদন্ত তদন্তের মত চলছে। কবে এই তদন্ত বা বিচারপ্রক্রিয়া শেষ হবে কেউ জানে না। কিন্তু চাকরিপ্রার্থীদের বয়স বেড়ে যাবে। ” রাজ্য সরকারের আইনজীবীকে উদ্দেশ্য করে বিচারপতির মন্তব্য “এই নিয়োগের জট খোলা দরকার।”