টার্গেটে রাম মন্দির! এবার বড়সড় প্ল্যান বঙ্গ বামেদের, কী নির্দেশ এল আলিমুদ্দিন থেকে ?

বাংলাহান্ট ডেস্ক: একাধিক রাজনৈতিক সংগঠন রাম মন্দিরকে কেন্দ্র করে তৈরি করতে চাইছে ধর্মীয় উত্তেজনা। চেষ্টা চালানো হচ্ছে দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের। বঙ্গের বাম শিবির অন্তত এমনটাই আশঙ্কা করছে। তাই সর্বদা সজাগ থাকতে হবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অটুট রাখার জন্য। সবাইকে সতর্ক থাকতে।

   

সূত্র মারফত পাওয়া খবর অনুযায়ী, কিছুদিন আগে বামফ্রন্টের বৈঠকে এই বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে রাজ্য বামফ্রন্টের পক্ষ থেকে সার্কুলার দেওয়া হয়েছে জেলায় জেলায়। এছাড়াও একটানা প্রচার অভিযানের ডাক দেওয়া হয়েছে আগামী ১৭ ই জানুয়ারি পর্যন্ত। এই প্রচার অভিযানের মূল উদ্দেশ্য হল সাধারণ মানুষকে সজাগ ও সতর্ক করা।

আরোও পড়ুন : রাম মন্দির উদ্বোধনের দিন হিন্দু কর্মীদের দু’ঘণ্টার বিরতি ঘোষণা! মালদ্বীপ বিতর্কের মাঝেই নজর কাড়ল মরিশাস

বৈঠকে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু নির্দেশ দিয়েছেন, অতীতে যে যে এলাকায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হয়েছে, রাজনৈতিক দল ধর্মীয় সুরসুরি দিয়ে যেসব জায়গায় সম্প্রীতি নষ্টের চেষ্টা করছে সেই সব জায়গায় আরো বেশি করে প্রচার চালাতে হবে। এই বিষয়গুলি নিয়ে সচেষ্ট করতে হবে সাধারণ মানুষকে।

আরোও পড়ুন : হাতে ধরে তৈরি করেছিলেন ভাইকে! কোচিং থেকে ডায়েট সবটাই হত সামির নির্দেশে, জানুন, কাইফের উত্থান কাহিনী

এছাড়াও নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু, মহাত্মা গান্ধীর মতো দেশের তাবড় তাবড় স্বাধীনতা সংগ্রামীদের মুখ সামনে রেখে প্রচার অভিযান চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জেলায় জেলায় বিশেষ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়েছে ২৩ শে জানুয়ারি, ২৬ শে জানুয়ারি, এমনকি মহাত্মা গান্ধীর মৃত্যু দিনেও। বামেরা চাইছে আগামী ২৩ শে জানুয়ারি দেশপ্রেম দিবস হিসেবে পালন করতে।

In ancient times, this ruler built the Ram Mandir

একই সাথে বিশেষ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়েছে গণতন্ত্র দিবসের দিন অর্থাৎ ২৬ শে জানুয়ারিও। আর কয়েক মাস পরই দেশে লোকসভা নির্বাচন। তার আগে ময়দানে বিশাল সভা করে ডিওয়াইএফআই নিজেদের ক্ষমতা জাহির করেছে। তরুণ প্রজন্মকে সামনে রেখে আগামী লোকসভা নির্বাচনে লড়াই করতে চাইছে বামফ্রন্ট।