BRICS-এ হঠাৎ চিনের প্রস্তাবে সায় ভারতের! ঘাবড়ে গেল বেজিং, মোদির পরিকল্পনা বুঝতেই পারেনি জিনপিং

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ব্রিকসে (BRICS) নতুন সদস্যদের যোগদান নিয়ে খানিকটা সুর নরম করল ভারত। জানা গিয়েছে, এই জোটে নতুন দেশকে অন্তর্ভুক্ত করার ক্ষেত্রে নিয়মাবলি চূড়ান্ত করতে ভারত (India) জোর দিয়েছে। সম্মেলন শুরুর আগে রাষ্ট্রনেতাদের মধ্যে এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। সেখানেই নতুন সদস্যদের ব্রিকসে স্বাগত জানাতে মত দিয়েছে ভারত। তবে চিন (China) ঘনিষ্ঠ দেশগুলিকে যেন ব্রিকসের সদস্যপদ না দেওয়া হয়, সেই নিয়ে সাউথ ব্লক সুর চড়াবে বলেই মত ওয়াকিবহাল মহলের।

কী দাবি আমেরিকার? বিশেষজ্ঞদের অনুমান, ব্রিকসের আয়তন বাড়ার বিষয়টি পশ্চিমি দুনিয়া ভাল চোখে দেখছে না। তাদের মতে, আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ওয়াশিংটন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের মতো ক্ষমতাশালী হয়ে উঠতে চাইছে এই জোট। যেহেতু চিন (China) ও রাশিয়া (Russia) দুই দেশই ব্রিকসের সদস্য, তাই নিজেদের ঘনিষ্ঠ দেশগুলিকেই সংগঠনের অন্তর্ভুক্ত করতে চাইছে মার্কিন বিরোধী দুই রাষ্ট্র।

BRICS,ভারত,India,চিন,China,রাশিয়া,Russia,Bangla,Bangla News,Bangla Khabor,Bengali,Bengali News,Bengali Khabor,Narendra Modi,Xi Jinping

ব্রিকস হবে আমেরিকা বিরোধী : নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আধিকারিকরা জানিয়েছেন, আবেদনকারী দেশগুলিকে দ্রুত সদস্যপদ দেওয়ার বিষয়ে সবচেয়ে বেশি আগ্রহী চিনই। ব্রিকসকে আমেরিকা বিরোধী হিসাবে গড়ে তুলবে চিন ও রাশিয়া-সেরকম সম্ভাবনা ছিল বলেই নতুন সদস্য বাড়াতে আপত্তি ছিল ভারতের। সেক্ষেত্রে প্রশ্ন উঠেছিল, গ্লোবাল সাউথের দেশগুলিকে ব্রিকসের মতো গুরুত্বপূর্ণ জোটে স্বাগত জানাতে চায় না ভারত।

কী সিদ্ধান্ত নিল ভারত? তবে এই চক্রান্তের মধ্যেই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিল ভারত। সম্মেলনে যোগ দেওয়ার আগেই মোদি বলেছিলেন, গ্লোবাল সাউথের কণ্ঠস্বর তুলে ধরার অন্যতম আদর্শ মঞ্চ এই ব্রিকস। সেই মন্তব্যকেই প্রায় কার্যকর করার পথে হাঁটতে চলেছে ভার‍ত। জানা গিয়েছে, ভারতের বন্ধুস্থানীয় দেশগুলিকে ব্রিকসের অন্তর্ভুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে নয়াদিল্লির।

আরও পড়ুন : চাঁদের পাহাড়ে পা দিল ভারত! ইতিহাস সৃষ্টি করল ISRO, সম্পূর্ণ হল আর্যভট্টর দেশের চন্দ্রবিজয়

ইতিবাচক থাকতে চায় নয়াদিল্লি : ভারতের বিদেশ সচিব বিনয় কোত্রা জানিয়েছেন, ইতিবাচক মানসিকতা নিয়েই ব্রিকসের সম্প্রসারণ করতে চায় ভার‍ত। তবে এই জোট যেন কোনওমতেই মার্কিন বিরোধী বা চিন-রাশিয়াপন্থী হিসাবে চিহ্নিত না হয়ে যায়, সেদিকেও কড়া নজর রাখা হবে।

Avatar
Sudipto

সম্পর্কিত খবর