খুনের মামলায় অভিযুক্ত শাহজাহানের বিরুদ্ধে হলফনামা দিতে সময় চাইল রাজ্য, বিরাট সিদ্ধান্ত হাই কোর্টের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ফেব্রুয়ারি মাসের শেষে সন্দেশখালি কাণ্ডে গ্রেফতার হন শেখ শাহজাহান (Sheikh Shahjahan)। বুধবার তাঁকে হেফাজতে নিয়েছে সিবিআই। জমি দখল, মহিলাদের ওপর অত্যাচার থেকে শুরু করে ধর্ষণ, একাধিক অভিযোগ রয়েছে এই সাসপেন্ডেড তৃণমূল (TMC) নেতার বিরুদ্ধে। খুনের অভিযোগও তাঁর কাছে নতুন নয়। এবার এই মামলায় হলফনামা দিতে সময় চাইল রাজ্য।

সন্দেশখালির এই দাপুটে নেতার বিরুদ্ধে তিনজন বিজেপি (BJP) নেতার খুনের অভিযোগ রয়েছে। এবার এই মামলা কলকাতা হাই কোর্টে ওঠার পর পাল্টা হলফনামা দেওয়ার জন্য সময় চেয়ে নিল রাজ্য। ১৯ মার্চ এই মামলার পরবর্তী শুনানি। তার আগে কলকাতা হাই কোর্টের (Calcutta High Court) বিচারপতি জয় সেনগুপ্ত (Jay Sengupta) নিম্ন আদালতের সকল বিচার প্রক্রিয়ার ওপর স্থগিতাদেশের নির্দেশ দিয়েছেন।

২০১৯ সালের ৬ জুন সন্দেশখালিতে তিনজন বিজেপি নেতার খুনের (Murder) অভিযোগ ওঠে। প্রদীপ মণ্ডল, সুকান্ত মণ্ডল এবং দেবদাস মণ্ডলকে খুনের পর তাঁদের দেহ লোপাট করার অভিযোগও উঠেছিল সেই সময়। কলকাতা হাই কোর্টে করা মামলায় রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেন, তিন বিজেপি নেতার এই হত্যার পিছনে রয়েছেন শেখ শাহজাহান। অন্যদিকে নেতাদের পরিবারের তরফ থেকেও হাই কোর্টে মামলা করা হয় এবং সিবিআই তদন্তের দাবি জানানো হয়।

আরও পড়ুনঃ সোজা বিধায়ককে ফোন? ফাঁস কল লিস্ট! শাহজাহান কাণ্ডে এবার আরও বড় নাম সামনে আনল CBI

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবারই সন্দেশখালি (Sandeshkhali) কাণ্ডে শাহজাহানকে সিবিআইয়ের (CBI) হাতে তুলে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাই কোর্ট। দু’দিনের টানাপোড়েন শেষে বুধবার কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া হয় তাঁকে। গতকাল রাত থেকেই সিবিআই জেরা শুরু করে দেয় বলে খবর। জানা যাচ্ছে, শীঘ্রই শাহজাহানকে সন্দেশখালি নিয়ে যেতে পারে সিবিআই। সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিশাল নিরাপত্তা থাকতে পারে।

cbi took sheikh shahjahan’s custody as per calcutta high court’s order

কারণ আশঙ্কা করা হচ্ছে, সন্দেশখালিতে শাহজাহানকে নিয়ে গেলে নতুন করে অশান্তি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেই কারণে সিবিআইয়ের সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীও যেতে পারে। লোকসভা ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণার পর শাহজাহানকে নিয়ে সন্দেশখালি যেতে পারেন সিবিআই আধিকারিকরা।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর