শাহজাহান মামলায় এবার ‘সেই’ ব্যক্তিকে তলব করল CBI, আজই সব ফাঁস? শোরগোল রাজ্যে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ সন্দেশখালি কাণ্ডে ইতিমধ্যেই শেখ শাহজাহানকে (Sheikh Shahjahan) হেফাজতে নিয়েছে সিবিআই। এবার কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা তলব করল সন্দেশখালির (Sandeshkhali) ‘বাঘে’র ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত বেশ কয়েকজনকে। রবিবারই সিবিআইয়ের (CBI) তরফ থেকে শাহজাহানের ‘ডানহাত’ রূপে পরিচিত জিয়াউদ্দিন মোল্লা সহ বেশ কয়েকজনের বাড়িতে নোটিশ পাঠায়। দেখা করতে বলা হয় তাঁদের। সোমবার নিজাম প্যালেস পৌঁছে গেলেন জিয়াউদ্দিন।

সিবিআই দফতরে ঢোকার আগে জিয়াউদ্দিন (Ziauddin Mollah) বলেন, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে সবরকমভাবে সহায়তা করবেন তিনি। সন্দেশখালিতে শাহজাহান ঘনিষ্ঠ রূপে পরিচিত তৃণমূল নেতা জিয়াউদ্দিন। গত ৫ জানুয়ারি ইডি (ED) আধিকারিক ওপর যখন হামলা হয় সেই সময় তাঁর উপস্থিতি আগেই চোখে পড়েছিল সিবিআই আধিকারিকদের।

ঘটনাস্থল থেকে পাওয়া সিসিটিভি ফুটেজে নাকি দেখা যায়, বেশ জোরের সঙ্গে ইডি আধিকারিকদের বাধা দিচ্ছেন শাহজাহানের ‘ডানহাত’ জিয়াউদ্দিন। শুধু তাই নয়, শোনা গিয়েছিল সেদিন সম্পূর্ণ ঘটনা পরিচালনাও নাকি তিনিই করেছিলেন! এরপর থেকেই সংবাদের শিরোনামে ছিলেন সন্দেশখালির এই তৃণমূল (TMC) নেতা। এবার তাঁকেই তলব করল সিবিআই।

আরও পড়ুনঃ সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত! মালদহের TMC প্রার্থী শাহনওয়াজের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অমিত মালব্য

গত ৫ জানুয়ারি রেশন দুর্নীতি কাণ্ডে শেখ শাহজাহানের বাড়িতে উপস্থিত হন ইডি আধিকারিকরা। সেখানে গিয়েই জনরোষের মুখে পড়েন তাঁরা। জখম হন ইডি আধিকারিকরা, ভাঙচুর করা হয় তাঁদের গাড়ি। ল্যাপটপ সহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথিও তাঁদের হাতছাড়া হয়ে যায়। এই ঘটনার পর ফেরার হয়ে যায় সন্দেশখালির ‘বাঘ’ শাহজাহান। প্রায় ৫৫ দিন বেপাত্তা থাকার পর মিনাখাঁ থেকে তাঁকে গ্রেফতার করে রাজ্য পুলিশ।

sheikh shahjahan ziauddin mollah

গত মঙ্গলবার এই মামলার তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার নির্দেশ দেয় কলকাতা হাই কোর্ট। প্রায় দু’দিনের টালবাহানার পর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার হাতে শাহজাহানকে তুলে দেয় সিআইডি। এরপর থেকে জোরকদমে ঘটনার তদন্ত করতে শুরু দেন সিবিআই আধিকারিকরা। ঘটনার দিনের ফুটেজ দেখে সরবেড়িয়ার আগারহাটি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান জিয়াউদ্দিন মোল্লা সহ বেশ কিছু মানুষকে চিহ্নিত করা হয়। ইডি ‘পেটানো’র ঘটনায় তাঁদের ভূমিকা ছিল এটা একপ্রকার স্পষ্ট হতেই তাঁদের তলব করলো কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর