সম্পত্তির পরিমাণ জানতে চেয়ে নবান্নে পৌঁছল অমিত শাহের কড়া চিঠি! নির্দেশ না মানলেই…

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গোটা দেশের সমস্ত IPS অফিসারদের আয়-ব্যয়ের হিসাব (Income Tax Returns) চেয়ে পাঠাল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক (Amit Shah Home Ministry)। এই মর্মে দেশের সমস্ত রাজ্যে গিয়েছে অমিত শাহের মন্ত্রকের চিঠি। চিঠি পৌঁছেছে বাংলাতেও। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীকে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। অর্থাৎ চিঠি এসেছে নবান্নে।

   

কি লেখা রয়েছে চিঠিতে? কেন্দ্রের পাঠানো ওই চিঠিতে বলা হয়েছে আগামী ২০২৪ সালের ৩১ জানুয়ারির মধ্যে সব রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে কর্তব্যরত সব আইপিএস পুলিশ আধিকারিককে নিজেদের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দিতে হবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকে। হিসাব জমা দেওয়ার জন্য একটি পোর্টালের ঠিকানাও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। চিঠিতে বলা হয়েছে ইমেল মারফতও IPS অফিসাররা নিজেদের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা করতে পারবেন।

শুধু তাই নয়, খুব স্পষ্ট কথায় কেন্দ্র জানিয়ে দিয়েছে, হিসাব দাখিলের ক্ষেত্রে কোনও রকম গড়িমসি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক বরদাস্ত করবে না। চিঠিতে জানানো হয়েছে, ‘এই তথ্য দেওয়ার ক্ষেত্রে কোনও রকম দেরি গ্রাহ্য করা হবে না।’ অল ইন্ডিয়া সার্ভিস রুল (কনডাক্ট) ১৯৬৮ অনুযায়ী সম্পত্তির হিসাব দেওয়া বাধ্যতামূলক সেকথাও জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: শুধুমাত্র ‘ঝটকা’ মাংস খাওয়া উচিৎ! হিন্দুদের বিরাট বার্তা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজের, জানেন কি এটি?

২০২৩ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত আইপিএস পুলিশ আধিকারিকের আয়-ব্যয়ের হিসাব জানতে নির্দেশ এসেছে। সাফ জানানো হয়েছে এক্ষেত্রে যদি কোনও অফিসার সম্পত্তির হিসাব জমা না দেন তাহলে তার ভিজিল্যান্স ক্লিয়ারেন্স খারিজ হয়ে যেতে পারে।

union home minister amit shah speaks in the lok sabha during the winter session of parliament in ne

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে ডিরেক্টর (পুলিশ) সুষমা চৌহান প্ৰতি রাজ্যের মুখ্যসচিবদের এই চিঠি পাঠিয়েছেন। এই চিঠি নিয়ে প্রশাসনিক মহলে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে। প্রশাসনিক মহলের একাংশের মতে, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক প্ৰতি বছরই IPS-দের আয় ব্যয়ের একটি বিস্তারিত হিসাব নেয়। সেই মতই এবারেও নেওয়া হচ্ছে। আবার কিছু অংশের মত, গত বছর থেকে যেভাবে গোটা দেশ জুড়ে কোটি কোটি টাকা উদ্ধারের ঘটনা সামনে আসছে তাতে সেসব ঘটনায় রাজ্যের পুলিশ কর্তারা কোনও ভাবে যুক্ত রয়েছেন কিনা সেই বিষয়ে নিশ্চিত করতেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এই স্টেপ।

সম্পর্কিত খবর