‘দুর্গাপুজো ও বড়দিন এক নয়, রাজ্যের বাইরে গিয়ে করুন!’, ক্রিস্টমাস নিয়ে বড় মন্তব্য হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির

বাংলা হান্ট ডেস্ক : যোধপুর পার্ক এলাকায় রাস্তার ধারে কেক বিতরণ (Cake Distribution) করা নিয়ে বড় রায় দিলেন হাইকোর্টের (Calcutta High Court) প্রধান বিচারপতি টিএস শিবজ্ঞানম। দূর্গাপুজায় অনুমতি মিললেও বড়দিনে (Christmas) পুলিশের আপত্তি নিয়ে আইনজীবী তার যুক্তি খাড়া করলেও প্রধান বিচারপতি তার সিদ্ধান্তে অনড়। স্পষ্ট কথায় জানিয়ে দিলেন, দুর্গাপুজো ও বড়দিনের কেক বিতরণ এক জিনিস নয়।

   

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, যোধপুর পার্ক এলাকায় রাস্তার ধারে বড়দিনের কেক বিতরণ অনুষ্ঠানে আপত্তি প্রজ্ঞা সেন নামক এক মহিলা জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন। তিনি তার বয়ানে বলেন, আয়োজকরা কেক বিতরণের জন্য যে জায়গাটিকে বেছে নিয়েছেন সেখানে বিশেষভাবে সক্ষমদের জন্য একটি স্কুল রয়েছে। সেই সাথে রয়েছে একটি হাসপাতাল ও নার্সিংহোমও। সেখানে জায়গাও কম। এমন পরিস্থিতিতে সেখানে কেক বিতরণের অনুষ্ঠান করা হলে সমস্যায় পড়বে বহু মানুষ।

এদিকে রাজ্যের তরফেও জানানো হয়, সেখানে রাস্তা সরু এবং পুলিশের তরফে অনুষ্ঠানের অনুমতি দেওয়া হয়নি। সবকিছু শোনার পর বিচারপতি টিএস শিবজ্ঞানম জানান, যোধপুর পার্ক এলাকায় কেক বিতরণ করা যাবেনা। যদি একান্তই কেক বিতরণ করতেই হয় তবে কোনও বস্তি এলাকায় গিয়ে অনুষ্ঠান করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এরপরেই বিচারপতির এই রায়ের বিরুদ্ধে সওয়াল করে উদ্যোক্তাদের পক্ষের আইনজীবী।

আরও পড়ুন : বছর শেষে সুখবর, বড়দিনের আগেই কমছে LPG গ্যাসের দাম! মিলবে এত টাকায়

তিনি বলেন, দুর্গাপুজো কিংবা জগদ্ধাত্রী পুজোর সময়ে পুলিশের আপত্তি থাকেনা তবে বড়দিনের সময় কেন আপত্তি থাকবে? আইনজীবীর এই বক্তব্যের পরেই বিরক্তি প্রকাশ করেন টিএস শিবজ্ঞানম। স্পষ্ট ভাষায় জানান, “দুর্গাপুজো আন্তর্জাতিক সংস্থার থেকে স্বীকৃতি পেয়েছে। এটি একটি কালচারাল ট্যাগ পেয়েছে। এটি পশ্চিমবঙ্গের সংস্কৃতির একটি অঙ্গ। শুধু তর্ক করার জন্য তর্ক করবেন না। আপনি নিজেও পশ্চিমবঙ্গের একজন। আপনি এই রাজ্যের নাগরিক।”

আরও পড়ুন : ‘পিসি-ভাইপোর খেল…’, অর্জুন সিং-র ভাইপো গ্রেফতার হতেই খোঁচা দিয়ে পোস্ট শুভেন্দুর

1671658221 park street

উদ্যোক্তা পক্ষের আইনজীবী কালীপুজোর প্রসঙ্গ টেনে আনার চেষ্টা করলে আইনজীবী তিরষ্কারের সুরে বলেন, “সময়োপযোগিতা নির্দেশ দেওয়া হয়ে থাকে। আপনি যথেষ্ট বড় মানুষ। আপনি যদি অনুষ্ঠান করতে চান, রাজ্যের বাইরে গিয়ে করুন।” অর্থাৎ একথা স্পষ্ট যে, যোধপুর পার্ক এলাকায় কেক বিতরণের অনুষ্ঠান আপাতত হচ্ছেনা।