টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘পিসি, ভাইপো চোর’, বলতেই BJP কর্মীদের চড়-ঘুষি বিধায়কের! পাল্টা নিগ্রহের অভিযোগ TMC-র

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ধুন্ধুমার চুঁচুড়া (Chinsurah)। বিজেপির মিছিলে তৃণমূল কর্মীদের (TMC Supporters) হামলার অভিযোগে তীব্র উত্তেজনা ছড়াল এলাকায়। বিজেপির (BJP) দাবি করছে, তাঁদের শান্তিপূর্ণ মিছিলে অতর্কিতে হামলা চালিয়েছে তৃণমূলের কর্মীসমর্থকরা। এমনকি লাঠি হাতে বিজেপি কর্মীদের (BJP Supporters) মারতে পর্যন্ত গিয়েছিলেন এলাকার তৃণমূল বিধায়ক অসিত মজুমদার (Asit Majumdar) হাতের কাছেই এক বিজেপিকর্মীকে পেয়ে চড়, ঘুষিও চালান। যদিও অসিত পাল্টা অভিযোগ করেন, অশান্তি ছড়ানোর মূলে রয়েছে বিজেপি। তাঁর গাড়ি ঘিরে নিগ্রহ করা হয়েছে বলেই দলীয় কর্মীরা তার প্রতিবাদ করেছেন মাত্র।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে চুঁচুড়ার খাদিনামোড়ের কাছে। বিজেপি কর্মীরা জানান, তাদের মিছিলের কাছে গাড়ি নিয়ে চলে আসেন বিধায়ক অসিত মজুমদার। বিজেপিকর্মীরা তার প্রতিবাদ করায় স্থানীয় কার্যালয় থেকে তৃণমূলকর্মীরা এসে মিছিলের উপর হামলা চালান। বিধায়ক গাড়ি থেকে নেমে বিজেপির পতাকা কেড়ে সেই পতাকা দিয়েই কর্মীদের মেরেছেন। যে টোটোতে প্রচার চালানো হচ্ছিল, সেই টোটোতে উঠে ঘুঁষিও চালান তিনি।

বিজেপির সহ সভাপতি রাজীব নাথে বাড়িতেও হামলা চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কেড়ে নেওয়া হয় রাজীব নাথের মোবাইল। তৃণমূল পাল্টা দাবি করে, বিধায়কের গাড়ি ঘিরে তাঁকে হেনস্থা করা হয়েছে। অসিত বলেন, ‘আমি কলকাতা থেকে ফিরছিলাম। রাস্তায় মারাত্মক যানজট তখন। ২৫-৩০টা লোক। ওরা বলছিল, তৃণমূলের সবাই চোর। আমি মিছিলটা ক্রস করে এগিয়ে এসেছি, তখনই বলে ওঠে, গাড়ি কেন এগোল? তার পরেই আমার উপর হামলা করে। পার্টি অফিসে আমাদের মেয়েদের মিটিং চলছিল। গোলমাল শুনে মেয়েরা বেরিয়ে আসে। পাল্টা মার দিতেই পালায় ওরা। ধাক্কাধাক্কিও তো করেছে।’

তৃণমূলের এক মহিলাকর্মীর দাবি, বিজেপিকর্মীরা তাঁদের গায়েও হাত দিয়েছে। তাই, বাধ্য হয়েই মারধর করেছেন তাঁরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মীর কথায়, ‘দাদা (বিধায়ক অসিত)-কে হেনস্থা করছিল ওরা। আমাদের মেয়েদেরও মারধর করেছে। তাই মেরেছি আমরা।’

মিছিলে হামলার অভিযোগ তুলে বিজেপি কর্মীরা চুঁচুড়া থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে সেখানেও অশান্তি ছড়ায়। গেরুয়া শিবিরের দাবি, ঘটনার পর চুঁচুড়া থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে সেখানেও তাদের মারধর করা হয়। যদিও কিছু ক্ষণের মধ্যেই দু’পক্ষকে ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে দেয় পুলিশ। তৃণমূলের পক্ষ থেকে অসিত মজুমদার অভিযোগ জানাতে থানায় যান।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেন, ‘গত ১০ বছরে কোনও তৃণমূল বিধায়ককে বিজেপি কর্মীরা হেনস্থা করেছে বললে অফিসের চেয়ার-টেবিলগুলো পর্যন্ত হেসে উঠবে। অসিত মজুমদার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক কর্মী। তিনি নিজের মেজাজ হারিয়ে এই সব অদ্ভুত আচরণ করছেন। কারণ, তিনিও বুঝতে পারছেন সেদিনের আর বেশি দেরি নেই। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি। এভাবে কিন্তু বিজেপিকে আটকানো যাবে না।’ বিজেপির তরফ থেকে বলা হয়, ‘গন্ডগোলের মূলে কে তা তো সিসিটিভি ফুটেজ চেক করলেই ধরা পড়বে।’

Related Articles

Back to top button