অধিকারী-গড়ে তৃণমূলের তুরুপের তাস দেবাংশু! তমলুক কাকে চাইছে? জানালেন সাধারণ মানুষ

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ অধিকারী-গড় নামে পরিচিত তমলুক কেন্দ্র। উনিশের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে এই কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারীর ভাই দিব্যেন্দু অধিকারী। এবার এই আসনে যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্যকে (Debangshu Bhattacharya) প্রার্থী করেছে জোড়াফুল শিবির (TMC)। বিজেপি এখনও প্রার্থী ঘোষণা করেনি। তবে কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, বিজেপি নেতা তথা কলকাতা হাই কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে দাঁড় করাতে পারে পদ্ম শিবির।

রবিবার ব্রিগেডের জনগর্জন সভা থেকে তৃণমূলের প্রার্থীতালিকা ঘোষণা করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপর থেকেই মাথাচাড়া দিতে শুরু করে একাধিক প্রশ্ন। তমলুকের মতো গুরুত্বপূর্ণ আসনে দেবাংশুকে প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত কি ঠিক হল? সাধারণ মানুষ কি আদৌ তাঁকে গ্রহণ করবে? এদিকে এই কেন্দ্র থেকে বিজেপি (BJP) কারোর নাম ঘোষণা না করলেও ইতিমধ্যেই অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের (Abhijit Ganguly) নামে দেওয়াল লিখন শুরু হয়ে গিয়েছে।

এই বিষয়ে জোড়াফুল প্রার্থী (Trinamool Congress) দেবাংশুকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, একজন ২৮ বছরের যুবক নাকি ৬১ বছরের প্রাক্তন বিচারপতিকে বেছে নেবে সাধারণ মানুষ, সেটা তাঁরাই বলবেন। তবে দেবাংশুর কথায়, তাঁর পক্ষেই আগে ছুটে যাওয়া সম্ভব। তৃণমূল প্রার্থী একথা বললেও, এলাকার সাধারণ মানুষ কী বলছেন?

আরও পড়ুনঃ ‘শীর্ষ নেতৃত্ব আমাকে…’, টিকিট দেয়নি তৃণমূল, ২৪ ঘন্টার মধ্যেই মুখ খুললেন কুণাল

এই বিষয়ে শ্যামাপ্রসাদ তিওয়ারি নামে এক স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, পরীক্ষায় কড়া গার্ড দেওয়া হলে ২ লক্ষ ভোটে জয়ী হবেন অভিজিৎবাবু। আর তা না হলে ১ লক্ষ ভোটে জিতবেন। যুব নেতা দেবাংশুর সঙ্গে তাঁর কোনও লড়াই হবে না বলেই অনুমান তাঁর। একই সুর শোনা যায় স্থানীয় এক বৃদ্ধের গলাতেও। অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় ছাড়া আর কোনও বিকল্পের কথা ভাবতেও নারাজ তিনি।

অন্যদিকে গ্রামবাসীর একাংশের মতে, পদ্ম শিবিরে যোগ দিয়ে বিচারপতি পদের মাহাত্ম্য খুইয়েছেন অভিজিৎবাবু। তাই প্রতিপক্ষ হিসেবে শিক্ষিত, স্বচ্ছ যুবক দেবাংশুই এগিয়ে। একজন বাসিন্দার কথায়, লড়াইটা কঠিন হবে না। উনি বিচারপতি ছিলেন, বিচারব্যবস্থার কলঙ্ক। প্রচুর চাকরি আটকে রয়েছে। তাই ভোট ময়দান তৃণমূলের দেবাংশুকেই এগিয়ে রাখার পক্ষপাতী তাঁরা। উল্লেখ্য, অধিকারী-গড় হিসেবে পরিচিত তমলুকের (Tamluk Constituency) ভূমিপুত্র নন দেবাংশু। রাজনীতির ময়দানে পা রেখেছেনও খুব বেশিদিন নয়। তা সত্ত্বেও দেবাংশুর ওপর আস্থা রেখেছে দল, লোকসভা ভোটে (Lok Sabha Election 2024) টিকিট দিয়েছে তাঁকে।

abhijit ganguly debangshu bhattacharya

এই বিষয়ে নন্দীগ্রামের যুব তৃণমূল সহ-সভাপতি আব্দুল তাজামুল আলি খানের কথায়, সহজেই জয়ী হবেই যুব নেতা দেবাংশু। অন্যদিকে এই আসনে বিজেপির তুরুপের তাস সেই নন্দীগ্রাম। ২০২১ বিধানসভা ভোটে এই আসন থেকে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারিয়ে জয়ী হয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তমলুক লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত নন্দীগ্রাম। তাই এই কেন্দ্রে জয়ের বিষয়ে বেশ আশাবাদী পদ্ম-শিবির। তমলুক সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সদস্য অভিজিৎ মাইতি এই প্রসঙ্গে বলেন, তৃণমূলের নম্বর ওয়ানকে পরাজিত করেছে নন্দীগ্রাম। তৃণমূলের টিকিটে যে-ই দাঁড়াক না কেন, তমলুকে পদ্মই ফুটবে!

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর