‘পরের ম্যাচে আমরা আরও…’, মরশুমের সবচেয়ে বড় জয় পেয়েই হুঙ্কার ইস্টবেঙ্গল কোচের

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্কঃ ডিসেম্বরে নিজেদের প্রথম ম্যাচটা খেলতে নেমে ইন্ডিয়ান সুপার লিগে (ISL 2023/24) অংশগ্রহণের পর থেকে নিজেদের সেরা পারফরম্যান্সটা ভক্তদের উপহার দিলেন ইস্টবেঙ্গলের (East Bengal) ফুটবলাররা। জোড়া গোল করলেন অধিনায়ক ক্লিয়েটন (Cleiton Silva)। কিছুদিন আগেই জোড়া পেনাল্টি নষ্ট করার জন্য যিনি খলনায়ক হয়েছিলেন। পরিবর্তন হিসেবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই মাঠে নামা নন্দকুমার (Nandha Kumar Sekar) যিনি ডুরান্ডের ফাইনালে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের জন্য ভিলেন হয়েছিলেন ওপেন গোল মিস করে তিনি আজ জোড়া গোলের পাশাপাশি একটি অ্যাসিস্ট করে সমর্থকদের চোখের মনি হয়ে উঠলেন। সেই সঙ্গে ছিনিয়ে নিয়ে গেলেন ম্যাচের ফেরার পুরস্কার।

   

মরশুমের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সময় বড় জয় পেয়ে সন্তুষ্ট ইস্টবেঙ্গলের কোচ কার্লেস কুয়াদ্রাত (Carles Cuadrat)। ইস্টবেঙ্গল চলতি মরশুমে জামশেদপুর ম্যাচে নিজেদের দোষে ৩ পয়েন্ট হাতছাড়া করেছে। বেঙ্গালুরু ম্যাচে রেফারির ভুল সিদ্ধান্তের পাশাপাশি কিছুটা নিজেদের দোষেও হারতে হয়েছিল ক্লিয়েটনদের। কেরালা ব্লাস্টার্স ম্যাচে গুরুত্বপূর্ণ সময় পেনাল্টি নষ্ট করে ১ পয়েন্ট হাতছাড়া করেছিল তারা। বেশ কিছু ক্ষেত্রে ভালো ফুটবল খেললেও ভাগ্য এবং শেষের দিকে ফিটনেস সমস্যা বগা ছিল লাল হলুদ ছবিরকে। কিন্তু আজ সেরকম কোন সমস্যা দেখতে পাওয়া যায়নি। ইস্টবেঙ্গল কোচ তাই বলে গেলেন যে এটাই প্রত্যাশিত ফল এবং গোটা টুর্নামেন্টে তারা ভাল খেলছিলেন। কিন্তু ভাগ্যের কাছে হেরেই পয়েন্ট খাওয়াতে হচ্ছিল তাদের। পরের ম্যাচে যুবভারতীতে পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে একই রকম পারফরম‍্যান্স আশা করছেন তিনি নিজের দলের ছেলেদের কাছ থেকে।

happy east bengal

আজ প্রথমার্ধেই দুই গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। ম্যাচের ১৪ মিনিটে বোরহা হেরেরা এই মৌসুমের অন্যতম সেরা গোলটি করে ইস্টবেঙ্গলকে এগিয়ে দেন। তারপর ১০ মিনিটের মধ্যে মন্দার রাও দেশাইয়ের একটি গোলের ঠিকানা লেখা ক্রস থেকে হেড করে স্কোরবোর্ড ২-০ করে দেন ক্লিয়েটন। এরপর বেশ কিছু সহজ গোলের সুযোগ নষ্ট করে নর্থইস্ট। ফলস্বরূপ প্রথমার্ধে আর স্কোরলাইন পরিবর্তন ঘটেনি।

আরও পড়ুন: টাকাটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নয়! মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে ফেরা হার্দিক পান্ডিয়াকে খোঁচা শুভমান গিলের

সমর্থকদের চিন্তা ছিল যে দ্বিতীয়ার্ধে ইস্টবেঙ্গলের ভেঙে পড়ার যে ছবিটা প্রতিদিন দেখে দেখে তারা অভ্যস্ত হয়ে উঠছেন তেমনটাই আবার দেখা যাবে কিনা। কিন্তু এদিন যেন ইস্টবেঙ্গল হিসেবে বদলে দেওয়ার জন্য মাঠে নেমেছিল। ইতিহাসে নর্থইস্ট বিপজ্জনক হয়ে ওঠার আগেই ৬২ মিনিটে পরিবর্তক হিসেবে নাম নন্দকুমার গোল করে ৩-০ করলেন স্কোরলাইন। তার ৪ মিনিটের মধ্যে নন্দার পাস থেকেই ৪-০ করে দেন ক্লিয়েটন নিজের চতুর্থ গোল করে। ৮২ মিনিটে মহেশের পাস থেকে ৫-০ করে নন্দা এই মরশুমে আইএসএলে সবচেয়ে বড় জয়টা আপাতত ইস্টবেঙ্গলের নামেই রেজিস্টার করে দিলেন।

আরও পড়ুন: কোহলি ও রোহিতের ভবিষ্যৎ নিয়ে BCCI-কে বড় পরামর্শ দিলেন সৌরভ! শুনে চমকাবে ভক্তরা

এদিন অসাধারণ পারফরম্যান্স করেছেন শৌভিক চক্রবর্তী এবং তরুণ বিষ্ণু। তার সঙ্গে গোলরক্ষক প্রভসুখমন গিলের প্রশংসাও করতে হবে। সঙ্গে একটা দল হিসেবে গোটা ৯০ মিনিট সঠিক এবং নিখুঁত ফুটবল খেলতে আজ সমর্থ হয়েছে ইস্টবেঙ্গল। পরের ম্যাচে রাউন্ড ক্লাস পাঞ্জাব এফসের বিরুদ্ধে নামার আগে এই জয় তাদের আত্মবিশ্বাস বাড়াবে। এদিন ভাগ্য পুরোপুরি সঙ্গ দিয়েছে ইস্টবেঙ্গলকে। নর্থইস্টের তরুণ ফুটবলার ফাল্গুণীর অর্জন করা পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন নেস্টর।