নেতাদের পর এবার নজরে দলের সুপ্রিমো, গ্রেফতার হতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী! ED-র হাতে চাঞ্চল্যকর তথ্য

বাংলা হান্ট ডেস্ক : তদন্তকারী অফিসারদের পাঠানো ৬ টি সমনকেই অগ্রাহ্য করে গেছেন তিনি। আর তাতেই মুখ্যমন্ত্রীর উপর চটে লাল ইডির (Enforcement Directorate) উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ষষ্ঠবার ইডি-র (ED) ডাক উপেক্ষা করতেই সোজা গ্রেফতারীর ভাবনাচিন্তা করতে বসেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। তারপর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে রাজ্য রাজনীতি।

   

সূত্র বলছে, এর আগে ইডির সমনের বিরুদ্ধে হাইকোর্ট এবং সুপ্রিম কোর্টে আপিল করেছিলেন ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন (Jharkhand CM Hemant Soren)। তবে সেই আপিল সাফ খারিজ করে জানানো হয়, তদন্তের জন্য সোরেনের জিজ্ঞাসাবাদ গুরুত্বপূর্ণ। উল্লেখ্য, খনি জমি কেলেঙ্কারি সহ একাধিক মামলায় দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ রয়েছে হেমন্ত সোরেনের বিরুদ্ধে।

জানা যাচ্ছে, গত মঙ্গলবার ইডি-র রাঁচি অফিসে ডেকে পাঠানো হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনকে। মূলত একটি জমি সংক্রান্ত মামলার স্বার্থে তার বিবৃতির প্রয়োজন ছিল। তবে পূর্বের মত এবারও সেই ডাক এড়িয়ে যান তিনি। আর তাতেই নাকি চটে লাল ইডির কর্মকর্তারা। রাজনৈতিক কারবারিদের মতে, এইভাবে ধারাবাহিক প্রত্যাখ্যান তাকে ইডি হেফাজতের কাছাকাছি নিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে যেখানে আদালত অবধি ইডির সহযোগিতা করার নির্দেশ দিয়েছে।

আরও পড়ুন : লক্ষ্মীর ভাণ্ডার অতীত! যুবকদের মাসে মাসে ১৫০০ টাকা দিচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার, পাবেন এভাবে

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছর পঙ্কজ মিশ্রর কাছ থেকে নগদ এবং ব্যাঙ্কে গচ্ছিত থাকা টাকা মিলিয়ে প্রায় ২০ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি। সেই সাথে ইডির হাতে আসে একটি AK47 এবং সোরেনের দেওয়া চেক। জানিয়ে রাখি এই পঙ্কজ মিশ্র নাকি হেমন্ত সোরেনের অত্যন্ত কাছের মানুষ।

আরও পড়ুন : চব্বিশে ফের বাম্পার জয় বিজেপির, মাত্র এত সিটেই থেমে যাবে কংগ্রেস! নয়া সমীক্ষা ঘুম ওড়াল জোটের

img hemant soren meets m 2 1 fnafeab8

চলতি বছরের জানুয়ারিতেও একবার সংবাদ শিরোনামে আসে সোরেনের নাম। মুখ্যমন্ত্রী ঘনিষ্ঠ প্রেম প্রকাশের জামিনের আবেদনের সময় ইডি জানিয়েছিল কেবল খনি কেলেঙ্কারিতেই ১০০০ কোটি টাকারও বেশি দুর্নীতি হয়েছে। ইডির নিশানায় ছিল পঙ্কজ মিশ্র ছাড়াও মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ প্রকাশও এই দুর্নীতির সাথে জড়িত। এছাড়াও সোরেনের বিরুদ্ধে হওয়া একটি মামলাতেও নাকি ৫০ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে ইডি।