বিপাকে মলয় ঘটক! বারবার হাজিরা এড়ানোয় আজই মন্ত্রীর বিরুদ্ধে বড় ব্যবস্থা নিতে পারে ED

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোট মিটে গিয়েছে বেশ কিছুদিন! তবে তারপরও ইডিতে (Enforcement Directorate) ‘না’ রাজ্যের আইনমন্ত্রী মলয় ঘটকের (Malay Ghatak)। কয়লা পাচার মামলায় (Coal Smuggling) কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা বারেবারে তলব করলেও হাজিরা এড়িয়ে যাচ্ছেন মলয়বাবু। ইডি সূত্রে খবর, এই নিয়ে মোট চোদ্দ বার হাজিরা এড়িয়েছেন তিনি। যার জেরে এবার বিপাকে পড়তে পারেন মন্ত্রী।

কিছুদিন আগেই মলয়বাবুকে দিল্লির সদর দফতরে সশরীরে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছিল ইডি। ইডি সূত্রে খবর, এর আগে মন্ত্রীমশাই চিঠি দিয়ে তদন্তকারী আধিকারিকদের জানিয়েছেন, পূর্ব নির্ধারিত কিছু কর্মসূচি থাকার কারণে তিনি দিল্লি যেতে পারছেন না।

তদন্তকারী সংস্থার দাবি বা অভিযোগ, আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী প্রতিবারই ১৫ দিন সময় দিয়ে মন্ত্রীকে ডাকা হচ্ছে। কিন্তু বারেবারে নানা কারণ দেখিয়ে তিনি হাজিরা এড়াচ্ছেন। তাই মলয়ের বিরুদ্ধে এবার কড়া পদক্ষেপ নিতে পারে ইডি। সূত্রের খবর, মন্ত্রীর গরহাজিরায় এবার
দিল্লি হাইকোর্টে যাচ্ছে ইডি। দিল্লি হাইকোর্টে এই নিয়ে আবেদন জানাতে পারে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

আরও পড়ুন: দীর্ঘ চার দশক পর ভাটপাড়ায় BJP-র জয়জয়কার! তৃণমূলের থেকে ছিনিয়ে নিল পঞ্চায়েত


প্রসঙ্গত পঞ্চায়েত ভোট পূর্বেও তাকে হাজিরা দিতে বলেছিল ইডি। সেইসময় রাজ্যের মন্ত্রী জানান পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। তাই তিনি হাজিরা দিতে পারবেন না। তদন্তকারী সংস্থার দাবি বা অভিযোগ, আদালতের নির্দেশ মেনেই মন্ত্রীকে ডাকা হচ্ছে। কিন্তু বারেবারে নানা কারণ দেখিয়ে তিনি হাজিরা এড়াচ্ছেন।

উল্লেখ্য, পঞ্চায়েত ভোটের সময় মন্ত্রীর তরফে গোয়েন্দা সংস্থাকে জানানো হয়েছিল, সামনে পঞ্চায়েত ভোট। দিন ঘোষণা হয়েছে গিয়েছে। তিনি প্রচারের কাজে জেলা সফরে ব্যস্ত। তাই দিল্লি (Delhi) যাওয়া তার পক্ষে সম্ভব নয়। তবে ভোট মিটে গেলে তাকে যখনই ডাকবে তখনই তিনি জানেন বলেও জানিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: ‘তিনজনই গর্ব..’, ববির মেয়ের হাতে ২ লাখের ব্যাগ, ছোট জনের জুতোর দাম শুনে ‘থ’ সকলে

এভাবে মন্ত্রীর বারবার হাজিরা এড়ানোর বিষয়টি আদালত অবমাননার সামিল বলে মনে করছে ইডি। এ নিয়ে আইনজীবীর পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে বলেও কেন্দ্রীয় সংস্থা সূত্রে খবর। জানিয়ে রাখি, তদন্তকারী সংস্থা যাকে হাজিরার জন্য ডাকবে তাকে যেতে হবে। এটাই নিয়ম। কোনও কারণে না গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিতে পারবে ED।

malay

সেক্ষেত্রে ইডির কি পদক্ষেপ হতে পারে? ইডি নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে অন্য তারিখ দিয়ে সুযোগ দিতে পারে। আবার নাও দিতে পারে। তদন্তকারী সংস্থা আদালতের কাছে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ইস্যুর জন্য আবেদন করতে পারেন। আবার যদি অভিযুক্তর কোনও সমস্যা থাকে তবে তিনি তদন্তকারী সংস্থার কাছে নতুন তারিখ চাইতে পারেন। এরপর তদন্তকারী অফিসাররা যে রকম বুঝবেন সেরকম পদক্ষেপ করবেন।

যদি তারা মনে করেন যে তিনি শুধুমাত্র জিজ্ঞাসাবাদ এড়ানোর জন্যই এই কাজ করছেন তবে তাকে গ্রেফতারির জন্য আদালতের কাছে ওয়ারেন্ট ইস্যুর আবেদনও করতে পারেন। কারণ ইডির অ্যারেস্ট করার ক্ষমতা রয়েছে। এরই মধ্যে এবার মন্ত্রীর বিরুদ্ধে হাইকোর্টে যাওয়ার খবরের আঁচ মিলতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর