টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘জেলে যেতে ভয় নেই, সামাজিক সম্মান হারানোর ভয় আছে’, কেষ্টর গ্রেফতারি মাঝে বার্তা ফিরহাদের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ সম্প্রতি, এসএসসি (SSC) দুর্নীতি মামলায় ইডির (ED) হাতে গ্রেফতার হয়েছেন প্রাক্তন তৃণমূল কংগ্রেস (Trinamool Congress) নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)। এর মাঝেই গত বৃহস্পতিবার আবার বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mondal) গ্রেফতার করেছে সিবিআই (CBI)। শুধু তাই নয়, সম্প্রতি তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক নেতা-মন্ত্রীদের সম্পত্তি বৃদ্ধির মামলায় ইডিকে অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta High Court)।

ইতিমধ্যে এই রায়টি পুনর্বিবেচনা করার আর্জিও জানিয়েছে ঘাসফুল শিবির। সব মিলিয়ে ঘরে এবং বাইরে ক্রমাগত অস্বস্তি বেড়ে চলেছে শাসক দলের। এর মাঝে এদিন সাংবাদিক সম্মেলন করে তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিমের দাবি, “সামাজিক সম্মান নিয়ে টানাটানি করে ইডি। আমার জেলে থাকতে কোন ভয় নেই, কিন্তু সামাজিক সম্মান নিয়ে টানাটানি করলে সেটা উদ্বেগের।”

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে শাসকদের একাধিক নেতা-মন্ত্রীদের সম্পত্তি বৃদ্ধি নিয়ে একটি মামলা করা হয়। সম্প্রতি এই মামলায় ইডিকে অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। ইতিমধ্যেই আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম, অরূপ রায় এবং জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের মত তৃণমূল নেতারা।

এদিন আবার সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত হন ফিরহাদ হাকিম। সেখানে তিনি বলেন, “তদন্তে কোনওরকম ভয় নেই। এমনকি যদি জেলে থাকতে হয়, তাহলেও ভয় পাই না। এর আগেও বাংলায় এমন অনেক নেতা রয়েছেন, যারা কারাগারে ছিলেন। কিন্তু আমাদের সবার সামাজিক সম্মান রয়েছে, সেটা যদি রাস্তায় নামিয়ে আনা হয়, তাহলে সেটা ভয়ের। বর্তমানে এমন কিছু মিডিয়া রয়েছে, যারা ক্যাঙ্গারু কোর্ট বসিয়ে দেয়।” এরপরই তিনি ইডি প্রসঙ্গে বলেন, “সামাজিক সম্মান নিয়ে টানাটানি করে ইডি। এটা চিন্তার বিষয়।”

স্বাভাবিকভাবে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, পার্থ এবং অনুব্রত মণ্ডলের গ্রেফতারের পর এবার কি দুশ্চিন্তায় পড়েছেন ফিরহাদ সহ অন্যান্য নেতারা।এ বিষয়ে এদিন বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য বলেন, “রাজনৈতিক বক্তব্য পেশ এবং যে কোন বিষয়ের বিরোধিতা করার অধিকার রয়েছে সকলের। তবে উনি যে কথাটি বলেছেন, তার কোন ভিত্তি নেই। বর্তমানে যে তদন্ত চলছে, তার নির্দেশ কেউ দেয়নি। ওরা একবার বলে, সবাই চোর। আবার পরবর্তীতে বৈঠক করে জানায়, কেউ কেউ চোর।”

Related Articles