বাড়ি ভাড়া দেওয়ার ক্ষেত্রে বদলে গেল নিয়ম! জনতার সুবিধার্থে বড় সিদ্ধান্ত পশ্চিমবঙ্গ সরকারের

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সল্টলেক-বিধাননগরকে (Saltlake Bidhannagar) তিলোত্তমা নগরীর প্রাণকেন্দ্র বললেও অত্যুক্তি হবেনা। একাধিক আইটি সংস্থার অফিসের পাশাপাশি বহু চাকরিজীবী এবং ব্যবসায়ীদেরা বাস সেখানে। আর এবার সেই বিধাননগরে বাড়ি ভাড়া দেওয়া নিয়েই বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল নবান্ন (Nabanna)। সূত্রের খবর, বিধাননগরের যে কোনও ‘নন রেসিডেন্সিয়াল’ জমিতে গড়ে ওঠা বাড়িতে ভাড়া দেওয়ার ক্ষেত্রে নিয়ম বদলাতে চলেছে সরকার (Government Of West Bengal)।

সূত্রের খবর, এবার থেকে বাড়ি ভাড়া বা লিজ নেওয়ার ক্ষেত্রে আবেদন করার পর মিলবে শর্তসাপেক্ষে অনুমতি। আর এই অনুমতি নেওয়ার মেয়াদ হতে চলেছে ৯০ দিন। এঈ সময়সীমার মধ্যেই উপযুক্ত কাগজ দেখিয়ে অনুমতি নিতে হবে বলে জানা গেছে। এবং এবার থেকে এই সময়ের মধ্যেই মিলবে অনুমতি।

আসলে বিধাননগর এলাকায় কোনও বাড়ি ভাড়া বা লিজ নিতে গেলে রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের থেকে অনুমতি নিতে হয়। তবে এতদিন পর্যন্ত এই অনুমতি নিতে গেলে বহু কাঠখড় পোড়াতে হত সাধারণ মানুষকে। বাড়ি ভাড়া নিতে গেলে বা দিতে গেলে বহু সময় অপেক্ষা করতে হত। বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসতেই তৎপর হয়ে ওঠে প্রশাসন।

আরও পড়ুন : ফের ED-র নিশানায় রাজ্যের মন্ত্রী! ৩ বছরের জেল সহ ৫০ লক্ষের জরিমানা, তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি

এই সমস্যার সমাধান করতেই নয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, যে ব্যক্তি বাড়ি ভাড়া নেবেন তার CIN, চুক্তিপত্র, পরিচয় পত্র এবং ১৫ হাজার টাকা জমা দিতে হবে। সমস্ত নথী চেক করার পর মিলবে শর্তসাপেক্ষে অনুমতি। তবে এই অনুমতির মেয়াদ কেবল ৯০ দিনের। এই সময়কালের মধ্যেই স্থায়ী অনুমতির ব্যবস্থা করতে হবে আবেদনকারীকে।

আরও পড়ুন : খুচরো বাজারে কমতে চলেছে চালের দাম, স্বস্তি ফিরবে হেঁশেলে! বড় পদক্ষেপ মোদী সরকারের

উল্লেখ্য, স্থায়ী অনুমতি পেতে হলে বেশ কয়েকটি শর্ত মেনে চলতে হবে। যেমন, মালিকের সাথে হওয়া চুক্তিপত্রে অবশ্যই বাড়ি ভাড়া নেওয়ার কারণ উল্লেখ করতে হবে। এবং যদি কোনও তথ্যপ্রযুক্তির কাজ করা হয় তাহলে সেক্ষেত্রে অনুমতি নিতে হবে তথ্য প্রযুক্তি দফতরে। সূত্রের খবর, অস্থায়ী অনুমতি মেলার পর ৯০ দিনের মধ্যেই এই শর্ত মেনে স্থায়ী আবেদনের অনুমতি নিতে হবে। এই সময়সীমার মধ্যে স্থায়ী অনুমতি না মিললে, পরবর্তী ৩০ দিনের মধ্যে বাড়ি খালি করে দিতে হবে বলে খবর।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর