৭২ ঘন্টার মধ্যে শাহজাহানের গ্রেফতারি চাই, রাজ্যকে কড়া হুঁশিয়ারি রাজ্যপালের

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সন্দেশখালির (Sandeshkhali) উত্তাপ লন্ডন অবধি পৌঁছে গেলেও আজও অধরা মাস্টারমাইন্ড শেখ শাহজাহান (Sheikh Shahjahan)। আর এবার তো হাইকোর্ট (Calcutta High Court) অবধি উদ্বিগ্ন। যদিও হাইকোর্টের রায়ের পরপরই তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ বলেছেন, আগামি সাত দিনের মধ্যে গ্রেফতার হবে শেখ শাহজাহান। তবুও যেন সন্তুষ্ট হতে পারছেননা রাজ্যপাল (Governor) সিভি আনন্দ বোস (CV Ananda Bose)।

   

এইদিন সন্দেশখালির ঘটনায় ফের একবার কড়া বার্তা দিয়েছেন তিনি। তার নির্দেশ, শেখ শাহজাহানের গ্রেফতারিতে যেন কোনও বিলম্ব না হয়। এমনকি এখনও পর্যন্ত তিনি গ্রেফতার কেন হননি সেই বিষয়েও কৈফিয়ত চাওয়া হল রাজ্য সরকারের কাছে। এমনকি তিনি জানিয়েছেন যে, আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যেই সেই কারণ দর্শাতে হবে রাজ্য সরকারকে।

গত মাসে ইডি পেটানোর ঘটনার পর থেকেই ‘ফেরার’ হয়ে রয়েছেন সন্দেশখালির বেতাজ বাদশা শেখ শাহজাহান। তখনই তার বিরুদ্ধে ‘লুক আউট’ নোটিশ জারি করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি। যদিও গ্রেফতারির বিষয়টা নিয়ে চলছিল নানা জল্পনা। তবে এইদিন কলকাতা হাইকোর্ট জানিয়ে দিয়েছে শেখ শাহজাহানের গ্রেফতারিতে আর কোনও বাধা নেই।

আরও পড়ুন : শুরু হল থমকে থাকা কাজ, নন্দীগ্রামে জোরকদমে কাজ করছে রেল, কবে চালু হবে লাইন? প্রকাশ্যে বড় তথ্য

এদিকে সবুজ সঙ্কেত মিলতেই সরব হয়েছেন রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস। এইদিন রাজভবন থেকে তিনি বলেন, ‘কালপ্রিটকে অবশ্যই গ্রেফতার করতে হবে। গ্রেফতার না করার জন্য কোনও অজুহাত আর থাকতে পারে না। শাহজাহানকে অবশ্যই গ্রেফতার করতে হবে।’ আর শেখ শাহজাহান গ্রেফতার না হলে যে তার কৈফিয়ত এবার রাজ্যকেই দিতে হবে সেকথাও দিনের আলোর মতোই স্পষ্ট।

আরও পড়ুন : সন্দেশখালি ঘটনার প্রতিবাদ লন্ডনেও, মুখ পুড়ল রাজ্যের! ব্যাকফুটে মমতা

thumb 5372

সন্দেশখালি ঘটনায় ইতিমধ্যেই মুখ পুড়েছে মমতা সরকারের। ন্যাশনাল মিডিয়াতে তো বটেই পাশাপাশি বিদেশের মাটিতেও বইছে নিন্দার ঝড়। এসবের মাঝেই আগামি ১০ মার্চ ব্রিগেড সভার ডাক দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। সন্দেশখালি থেকেও মানুষজন সেই সভায় যোগ দিতে আসবে বলে জানিয়েছে তৃণমূল। সেই সভাতেই সন্দেশখালি নিয়ে বক্তৃতা দেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর