জঙ্গি দমনে বিরাট সাফল্য, একযোগে খতম ২৯ নকশাল! ছত্তিশগড়ে রণংদেহী ভারতীয় সেনা

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : জঙ্গি দমনে বিরাট সাফল্য। ছত্তিশগড়ে (Chhattisgarh) ব্যাপক গুলির লড়াই। একযোগে ২৯ জন নকশালের (Naxal) এনকাউন্টার করল পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনী। আহত হয়ছেন ৩ সেনাও। একই সাথে উদ্ধার হয়েছে প্রচুর আগ্নেয়াস্ত্র। ঘটনার পর থেকেই এলাকাজুড়ে ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য।

সূত্রের খবর, ঘটনাটি ঘটেছে ছত্তিশগড়ের কাঙ্কের জেলায়। মঙ্গলবার কাঙ্কের জেলার ছোটবেঠিয়া থানা এলাকার জঙ্গলে পুলিশ ও নকশালদের মধ্যে হঠাৎ গোলাগুলি শুরু হয়। পুলিশের গুলিবর্ষণের কাছে নতি স্বীকার করতে বাধ্য হয় নকশালদল। গোলাগুলি থামতে মোট ২৯ জন নকশাল বাদীর দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এনকাউন্টার শেষে শুরু হয় খানা তল্লাশি। সূত্রের খবর, এই মুহূর্তে গোটা এলাকাকে মুড়ে ফেলেছে সশস্ত্র সেনা বাহিনী। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চলছে তল্লাশি। ইতিমধ্যেই উদ্ধার করা হয়েছে সাতটি একে ৪৭ সহ আরও একাধিক অস্ত্র। উদ্ধার হয়েছে 3 LMG এবং INSAS রাইফেল। তবে দুঃখের বিষয় এই যে, এই ঘটনায় জখম হয়েছেন ৩ সেনা আধিকারিক।

আরও পড়ুন : বাংলার নিজস্ব IPL, বড় উদ্যোগ নিল CAB! ফ্র্যাঞ্চাইজ নিল দুই সংস্থা

২৬ এপ্রিল কাঙ্কেরে ভোট হবে : এখানে বলে রাখা ভালো যে, কাঙ্কের হল ছত্তিশগড়ের একটি লোকসভা আসন। এই লোকসভার আন্ডারে মোট ৬টি বিধানসভা রয়েছে। এই জেলাটি মূলত রায়পুর এবং জগদলপুরের মধ্যে পড়ে। বিগত কয়েক বছর ধরেই এই জেলায় আস্তানা গেড়েছে নকশালরা। এই এলাকায় ক্রমাগত বেড়েই চলেছে নকশালদের দৌরাত্ম্য।

আরও পড়ুন : স্বাধীনতার পর এই প্রথম, ভোটের আগে ৪৬৫০ কোটি বাজেয়াপ্ত কমিশনের! কার থেকে?

এদিকে আগামী ২৬ এপ্রিল লোকসভা নির্বাচন রয়েছে এই এলাকায়। দ্বিতীয় দফায় ভোট হবে এখানে। এমন আবহে পুলিশের সন্দেহ ছিল, এই এলাকায় কোনও বড়সড় নাশকতার ছক কষছে নকশালরা। তারপরেই শুরু হয় অভিযান। ফলও মিলেছে হাতেনাতে। একযোগে নিকেষ ২৯ জঙ্গি।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর