ইতিহাস! রাতের অন্ধকারে কার্গিলে যুদ্ধ বিমানের ল্যান্ডিং, পাকিস্তানের বুক কাঁপিয়ে বড় পদক্ষেপ ভারতের

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ইতিহাস তৈরি করল ভারতীয় বিমান বাহিনী (Indian Air Force)। রাতের অন্ধকারে ভারতীয় বায়ুসেনার সি-১৩০ জে বিমান নামল কার্গিল এয়ারস্ট্রিপে (Kargil Airstrip)। আর তাও প্রথমবারের মত। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৮,৮০০ ফুট উঁচুতে এই ভূখণ্ডে যেখানে দিনেরবেলাতেই কোনও বিমান নামতে সাহস পায়না সেখানে রাতের অন্ধকারে বিমান অবতরণ করা সত্যিই চ্যালেঞ্জের। আর এবার সেই চ্যালেঞ্জকেই বাস্তব করে দেখালো ভারতীয় বায়ুসেনা।

   

গত শনিবার রাত্রে এই ভিডিও পোস্ট করেছে ভারতীয় বায়ু সেনা। সেই সাথে ক্যাপশনে লেখা আছে, ‘সম্প্রতি প্রথমবার, আইএএফ-এর সি-১৩০জে বিমান কার্গিল এয়ারস্ট্রিপে রাতে অবতরণ করেছে।’ সেই সাথে বায়ুসেনা আরও জানিয়েছে, এই অসাধ্য সাধন করার জন্য তারা টেরাইন মাস্কিং এনব্যুট ব্যবহার করেছেন। এমনকি সেখানে অবতরণের পর গড়ু্র বাহিনী তাদের প্রশিক্ষণও শুরু করে দিয়েছেন বলে খবর।

যদিও এই প্রশিক্ষণ অভিযান সম্পর্কে কোনও বিস্তারিত তথ্য এখনও সামনে আসেনি। তবে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৮,৮০০ ফুটেরও বেশি উচ্চতায় উঁচু পাহাড়ের মাঝে এমন সফট ল্যান্ডিং করে ভারতীয় বায়ুসেনা বুঝিয়ে দিয়েছে যে, তারা ঠিক কতটা দক্ষ। সেই সাথে গোটা দুনিয়ার কাছে এই বার্তা পৌঁছে দিয়েছেন যে, সাহসিকতা আর দক্ষতার দিক দিয়ে আমাদের ভারত মাতার বীর সন্তানদের ধারে কাছেও কেউ আসতে পারবেনা।

আরও পড়ুন : মোদীর লাক্ষাদ্বীপ ভ্রমণের জেরে ‘উপহাস’ ভারতীয়দের! এবার চরম বিপাকে মালদ্বীপের নেতা

সেই সাথে তারা জানিয়ে দিয়েছে যে, পাহাড়ি পরিবেশে যে কোনও অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতির জন্য তারা প্রস্তুত। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছরের নভেম্বরে IAF তার দুটি লকহিড মার্টিন C-130J-30 ‘সুপার হারকিউলিস’ সামরিক পরিবহন বিমানকে উত্তরাখণ্ডের আকাশপথে অবতরণ করেছিল। উত্তরাখণ্ডে সুড়ঙ্গের ভিতরে শ্রমিকরা আটকা পড়লে তাদের মাধ্যমে সুড়ঙ্গ খননের প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি উত্তরকাশীতে নিয়ে যাওয়া হয়।