কংগ্রেসের ভরাডুবির পর বাতিল ‘ইন্ডিয়া’ জোটের বৈঠক! ‘পিণ্ডি চটকে গেছে’ বলে কটাক্ষ শুভেন্দুর

বাংলা হান্ট ডেস্ক : তিন রাজ্যে পদ্ম ফুটতেই হুলুস্থুল পড়ে গিয়েছে ইন্ডিয়া জোটে (INDIA Alliance) । চব্বিশের আগে বিপর্যয় আঁচ করে গত রবিবার তড়িঘড়ি ‘ইন্ডিয়া’র শরিকদের নিয়ে বৈঠকে সক্রিয় হয়েছিল কংগ্রেস (Congress)। কথা ছিল, আগামী বুধবার, ৬ ডিসেম্বর দিল্লিতে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। আর সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন জোটের সকল সদস্যরা। তবে কোথায় কী? কানাঘুষা খবর, ইতিমধ্যেই বাতিল হয়ে গেছে সেই বৈঠক।

   

তবে কি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) সহ তিন বিরোধী নেতা মুখ ফিরিয়ে নিতেই, বৈঠক পিছানোর সিদ্ধান্ত শীর্ষ নেতৃত্বের। নাকি সত্যিই বড়সড় ফাটল ধরেছে মোদী (Narendra Modi) বিরোধী ‘ইন্ডিয়া জোটে’? প্রশ্ন উঠেছে রাজনৈতিক মহলে। উল্লেখ্য, বুধবারের বৈঠকের সময় বদলে আগামী ১৭ ডিসেম্বরের তারিখ ধার্য করা হয়েছে। অন্তত ইন্ডিয়া’র অন্যতম শরিক আরজেডির প্রধান তথা বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদবের (Lalu Prasad Yadav) তো এমনটাই বক্তব্য।

পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর তৃণমূল সহ কয়েকটি শরিক দলের সঙ্গে কংগ্রেসের যে রাজনৈতিক চাপানউতোর তৈরি হয়েছে সেই আবহে এই বৈঠককে ‘তাৎপর্যপূর্ণ’ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশ‌। উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু (Suvendu Adhikari) ‘ইন্ডিয়া’ জোট প্রসঙ্গে কটাক্ষ করে বলেন, ‘ইন্ডিয়া জোটের পিন্ডি চটকে গিয়েছে। আমি ওই জোটের নেতাদের বলব গয়াতে গিয়ে পিন্ডি দেওয়ার কাজটা শেষ করে আসুন।’

আরও পড়ুন : জাতীয় সঙ্গীতের মত চালু হল রাজ্য সঙ্গীত! ‘বাংলার মাটি বাংলার জল’, গাইলেই উঠে দাঁড়াতে হবে, নির্দেশ মমতার

আসলে বৈঠক নিয়ে জল্পনা কল্পনা তুঙ্গে উঠতেই বোমা ফাটান বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এইদিন রাজভবন থেকে বেরিয়ে সাফ জানিয়ে দেন, উত্তরবঙ্গে পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি থাকার জন্য তিনি বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারবেননা। একই বক্তব্য শোনা যায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলাতেও। সেই সাথে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার এবং সপা-র প্রধান অখিলেশ যাদব এবং ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী তথা জেএমএম নেতা হেমন্ত সোরেনও জানান, বৈঠকের দিন নিয়ে অসুবিধা রয়েছে তাদের।

আরও পড়ুন : ‘মোদী হ্যায় তো মুমকিন হেয়’ নীতিশ ঘনিষ্ঠর গলায় ‘নমো বন্দনা’! বিহারে ফের পদ্ম? ফাটল ইন্ডিয়া জোটে

এমন পরিস্থিতিতে বৈঠক বাতিল করা ছাড়া আর কোনও উপায় ছিলনা তা বলাই বাহুল্য। রাজনৈতিক মহলের খবর, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, ছত্তীসগঢ়ের বিধানসভা ভোটে কংগ্রেসের ‘একলা চলো’ নীতি নিয়ে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন মমতা, অখিলেশ, নীতীশ, অরবিন্দ কেজরীওয়ালরা। এমন পরিস্থিতিতে বিজেপি বিরোধী বৈঠক নিয়ে নড়েচড়ে বসেছেন লালু।

সম্পর্কিত খবর