আর মাত্র কয়েক দিন, আসছে সুখবর! হাওড়া নয়, তবে বাংলা দিয়েই ছুটবে দেশের প্রথম ‘অমৃত ভারত’

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ট্রেনের জার্নিকেই সবচেয়ে স্বাচ্ছন্দ্যের আর সেই সঙ্গে সঙ্গে তুলনামূলক সস্তার বলেই মনে করে আমজনতা। তারপরেও বহু ক্ষেত্রেই দেখা যায় সমাজের একদম নীচুতলার শ্রমজীবী মানুষেরা আর্থিক দৈনতা থাকার কারণে বেশ কয়েকটি ট্রেনে চাপার সুযোগ পান না। এবার সেইসব মানুষদের জন্যই নতুন বন্দোবস্ত চালু করতে চাইছে ভারতীয় রেল।

   

আর মাত্র কয়েকদিন পরেই এদেশে ছুটতে শুরু করবে অমৃত ভারত এক্সপ্রেস। এক্কেবারে কম টাকায় বন্দে ভারতের মতো পরিষেবা মিলবে বলেই জানা গিয়েছে। এটিকে আদতে ‘বন্দে ভারতের স্লিপার ভার্সন’ বলে একাধিক রিপোর্টে জানানো হয়েছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ৩০ ডিসেম্বর দেশের প্রথম ‘অমৃত ভারত ট্রেন’ চালু হতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ থেকে।

আরোও পড়ুন : বছর শেষে বড় প্ল্যান মুকেশ আম্বানির! এবার আপনার বাড়ির কাছেই দোকান খুলবে রিলায়েন্স

সূত্রের খবর, মালদা থেকে ‘অমৃত ভারত ট্রেন’-র উদ্বোধন করা হতে পারে। ভার্চুয়ালি সেই ট্রেনকে সবুজ পতাকা দেখাবেন রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। প্রস্তুতি একদম তুঙ্গে রয়েছে। ভারতীয় রেলের তরফে সরকারিভাবে এই বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো না হলেও সূত্রের খবর, মালদা টাউন, নিউ ফরাক্কার মতো বিভিন্ন স্টেশনেও বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে।

vande sadharan express loco wap 5 (35027)

জানা গিয়েছে, এই পুশ-পুল ট্রেনের ট্রায়াল ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে। রাজধানী, শতাব্দী ও বন্দে ভারতের মতো ঘণ্টায় ১৩০ কিলোমিটার গতিতে চলতে পারবে ২২ কোচের এই ট্রেন। গেরুয়া রঙের এই ট্রেনে শুধু স্লিপার ও জেনারেল ক্যাটাগরির কোচ থাকবে। কোন কোন স্টেশনে মালদা-বেঙ্গালুরু অমৃত ভারত ট্রেন দাঁড়াবে, ভাড়া কত পড়বে, তা অবশ্য এখনও পর্যন্ত স্পষ্ট নয়।